0মুখ্য একসারি প্রশ্নে মস্কো ও ওয়াশিংটনের মতভেদ বজায় রয়েছে, সেই সঙ্গে মার্কিনী রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে. এ সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার “ইন্টারফাক্স” সংবাদ সংস্থাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের সচিব নিকোলাই পাত্রুশেভ. তিনি বলেন যে, মস্কোয় জানা আছে যে, বিশ্বব্যাপী মার্কিনী রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সংক্রান্ত পরিকল্পনার নেতিবাচক মূল্যায়ন করা হচ্ছে বিজিংয়েও. পাত্রুশেভ বলেন যে, বিশ্বায়নের পরিবেশে পৃথিবীতে পরিবর্তন সত্ত্বেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একরোখাভাবে পৃথিবীতে নিজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামরিক আধিপত্যের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে. বর্তমানে তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হল এমন প্রধান্যের বিপদ দূর করা, যা তাদের মতে সর্বপ্রথমে আসছে চীনের তরফ থেকে. মার্কিনী প্রশাসন এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলকে পররাষ্ট্রনৈতিক প্রাধান্য হিসেবে চিহ্ণিত করেছে. চীনের ক্রমবর্ধমান ক্ষমতার মুখ্য প্রতি-ভার হিসেবে মার্কিনীরা ভারতকে ব্যবহারের চেষ্টা করছে. এ জন্য তারা দিল্লির সাথে বিশেষ ঘনিষ্ঠ স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতার ধারণা উথ্থাপন করছে. একই সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ককেশাস, ক্যাস্পিয়ান ও মধ্য এশিয়ার বিশাল এলাকার সম্পদের দিকে প্রত্যক্ষভাবে হাত বাড়াতে চায়. পাত্রুশেভ বলেন যে, রাশিয়ার জ্বালানী, জল ও অন্যান্য সম্পদকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণে আনার প্রয়োজনীয়তা সম্বন্ধে মার্কিনী রাজনীতিজ্ঞদের উক্তি সকলেরই জানা আছে. সেই সঙ্গে তিনি বলেন যে, মস্কো ওয়াশিংটনের সাথে সম্পর্ক বিকাশের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে. তিনি বলেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পাশ্চাত্যের মুখ্য দেশ হিসেবে বজায় রয়েছে, এবং ওয়াশিংটনেই ন্যাটো জোটের মুখ্য স্ট্র্যাটেজি নির্ধারিত হয়ে থাকে.