বাশকির রাজ্যের রাজধানী উফা শহর ২০১৩ সালে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি শুরু করেছে. বিশ্বে ষষ্ঠ বার হতে চলা এই প্রতিযোগিতা প্রথমবার হবে রাশিয়াতে ও সোচী শীত অলিম্পিকের জন্য একটা শুরুর ব্যাপার হতে চলেছে.

    ১৯৬৮ সালে প্রথমবার স্কুল পড়ুয়াদের জন্য খেলার আয়োজন করা হয়েছিল. তারপর থেকে ৪৪বার গ্রীষ্ম ও ৫ বার শীত আন্তর্জাতিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হয়েছে. সব মিলিয়ে ৩৭ হাজার ছাত্রছাত্রী এতে অংশ নিয়েছিল. আর কয়েক মাস বাদে ৮০০ তরুণ তরুণী শক্তি পরীক্ষা করতে উফা শহরে আসবে.

    বাশকির রাজ্যের রাজধানী ঐতিহ্য অনুযায়ী শীতের খেলাধূলার বিষয়ে নেতৃস্থানীয় জায়গা দখলে রেখেছে. শহরে অনেক বিখ্যাত খেলোয়াড় থাকেন, যাঁরা অলিম্পিক, ইউরোপীয় ও রাশিয়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে থাকেন. আমাদের দেশ যে, স্কুলের ছেলেমেয়েদের প্রতিযোগিতার জন্য উপযুক্ত জায়গা হিসাবে উফা শহরের নাম প্রস্তাব করেছে, তা কোন হঠাত্ করেই করা কাজ নয়, এই কথা রেডিও রাশিয়াকে বাশকির রাজ্যের প্রেসিডেন্টের তথ্য সম্পাদক আরতিওম ভালিয়েভ জানিয়ে বলেছেন:

    "এখানে এই ধরনের খেলোয়াড়দের প্রস্তুতির জন্য খুব ভাল ক্যাম্প রয়েছে – এটা যেমন বিয়াথলন প্রতিযোগিতার রাস্তা, তেমনই পাহাড় থেকে বরফে পিছলে নামার ঢাল. উফার সালাভাত ইউলায়েভ নামের দল গত আইস হকি সিজনে গাগারীন কাপ জয় করেছে. এটাই বলে দেয় যে, আমাদের এখানে শীতের খেলাধূলা খুবই ভাল ভাবে উন্নতি করতে পেরেছে".

    স্কুল পড়ুয়াদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজক কমিটি স্কটল্যান্ডের ল্যাঙ্কাশায়ার কাউন্টিতে তাঁদের বৈঠকে খেলা কোথায় হবে তা স্থির করেছেন. আর এর অল্প কিছুদিন আগেই এই কমিটির সদস্যেরা উফা শহরে এসেছিলেন, যাতে রাশিয়ার এই অঞ্চলের পক্ষে এত বড় ধরনের প্রতিযোগিতা আয়োজন করার মতো সুবিধা রয়েছে কি না তা দেখতে. দেখা গেল যে, উফা শহরে দরকার হলে আগামী কালই এই ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা সম্ভব ও অল্প বয়সী খেলোয়াড়েরা চলে আসতেই পারেন – এখানে আইস হকি খোলার জন্য বিশাল স্টেডিয়াম রয়েছে, বেশ কয়েকটি স্কেটিং রিঙ রয়েছে ফিগার স্কেটিং এর জন্য, বিয়াথলন প্রতিযোগিতার জায়গা তৈরী আর রয়েছে অনেক হোটেল, যেখানে প্রতিযোগিতায় আসা সকলেরই থাকার বন্দোবস্ত করা সম্ভব.

    বাশকির রাজ্যের প্রেসিডেন্ট রুস্তেম হামিতভ যে নির্দেশ স্বাক্ষর করেছেন, তা অনুযায়ী এই প্রতিযোগিতা হবে ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারী – মার্চ মাসে. আঞ্চলিক প্রশাসনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এই অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা তৈরী ও তা সর্ব সম্মতি ক্রমে গ্রহণের ও প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করার, তারই সঙ্গে অর্থ বিনিয়োগের উত্স নির্দিষ্ট করার ব্যবস্থাও.

    বাশকির রাজ্যের রাজধানী এক ধরনের শুরুর জায়গা হতে চলেছে একসারি বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার. ২০১৩ সালের গরমে কাজান শহরে হতে চলেছে বিশ্ব ইউনিভার্সিয়াড, যেখানে ছাত্র ও যুব প্রতিযোগিতা হবে. আর এই খেলার ম্যারাথন ২০১৪ সালের সোচী শীত অলিম্পিক দিয়ে শেষ হবে.