বেশীর ভাগ লোকেরই শখ থাকে, অন্যভাবে বলতে হলে, অনেকেই নিয়মিত ভাবে ফাঁকা সময় নিজের জন্য কিছু একটা আগ্রহের বিষয় নিয়ে চর্চা করে থাকেন. শখের মধ্যে প্রায়ই অসাধারন সব ব্যাপার দেখতে পাওয়া যায় এর মধ্যে কিছু চারপাশের লোকেদের জন্য হর্ষ ও বিস্ময়ের উদ্রেক করে, আর অন্য গুলো – বুঝতে না চাওয়া আর বিরক্তির কারণ হয়.

    যদি প্রশ্ন করা হয় যে, আপনি ফাঁকা সময়ে কি নিয়ে চর্চা করেন, আর আপনি তার উত্তরে বলেন: আরে আমার তো ফাঁকা সময় বলতে কিছুই নেই! – এটা তাহলে বিপজ্জনক লক্ষণ. আর এখানে ব্যাপার শুধু এই নয় যে, আপনি খালি নিজের সময় ও শক্তি  ঠিক মতন করে ব্যবহার করতে পারেন না. মনস্তত্ত্ববিদেরা জোর দিয়ে বলে থাকেন প্রত্যেকেরই বাড়ীর কাজ ও কাজের জায়গার কাজ ছাড়াও একটা শখ থাকা দরকার. শখ মানুষের জীবনকে নতুন বোধে পূর্ণ করে, বিশ্রামকে অর্থবহ করে তোলে, সৃষ্টির ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়. এখানে মুখ্য হল – ঠিক করে শখ বাছতে পারা, যাতে তা ব্যক্তির উপকারে লাগে, এই কথা মনে করে ফলিত মনস্তাত্ত্বিক কেন্দ্রের ডিরেক্টর সের্গেই ক্লুচনিকোভ বলেছেন:

    "এই ধরনের শখ প্রধান কাজ থেকে অন্যমনস্ক করে দেয় না, সময় নষ্ট করায় না, বরং তার মধ্যেই নিজের কিছু একটা রেখে দিতে ও নিজের জীবনকে আরও গুণান্বিত করতে. যেমন, নিজের দৃষ্টিভঙ্গী প্রসারিত করতে, এই দুনিয়ায় কিছু একটা আলাদা করে বুঝতে, নিজের বুদ্ধিকে তালিম দিতে".

    শখের পরিসর অত্যন্ত প্রসারিত – একেবারে ভয়ঙ্কর থেকে মন কাড়া সুন্দর পর্যন্ত. সের্গেই ক্লুচনিকোভের মতে, মানুষে অসাধারন সব শখ বেছে নিয়ে থাকেন, দুটো ক্ষেত্রে: অন্যদের থেকে আলাদা হওয়া ইচ্ছা নিয়ে অথবা জীবনে কোন রকমের তীক্ষ্ণ অনুভূতির অভাব হলে.

    অসাধারন শখের তালিকায় – কাঁচ, পেরেক, ছুরি মুখের ভিতরে নেওয়া. ৬৭ বছরের দক্ষিণ আফ্রিকার লোক ভোলফগাঙ্গ লিন্ডের হাঙ্গরের সঙ্গে সাঁতার কাটার মতো বিপজ্জনক ও নার্ভে সুড়সুড়ি দেওয়া শখ পছন্দ করেন. ৬ বছর বয়স থেকে জলের তলার জীবনের উপরে ছেলেটির আগ্রহ হয়েছিল, যখন সে বই থেকে প্রথম জানতে পেরেছিল এই সামুদ্রিক দানবদের কথা. এখানে সবচেয়ে অবাক হওয়ার মতো হল যে, লিন্ডের শুধু হাঙ্গরদের সঙ্গে সাঁতারই কাটেন না, তাদের আবার মাছের লোভ দেখিয়ে নিজের দিকে ডেকে আনেন আর বর্শা দিয়ে কাতুকুতু দেন. বিগত ৫০ বছর ধরে তাঁর এই ধরনের শখের একটাই ঘটনা ঘটেছিল, যখন এই হিংস্র প্রাণী, হঠকারী ব্যক্তিকে আক্রমণ করেছিল.

    শখ মানুষের সম্বন্ধে অনেক কিছু বলতে পারে, যেমন, লিন্ডের প্রত্যেক দিন যথেষ্ট তীক্ষ্ণ সমস্যায় পড়েন না, এই কথা বলে সের্গেই ক্লুচনিকোভ বলেছেন:

    "যদি মনে করা হয় যে, মানুষ কোন ঐতিহাসিক ঘটনা নতুন করে তৈরী করার চেষ্টা করছে, তার মানে হল, সে বেঁচেই রয়েছে, তার জানার ইচ্ছা আছে, তার লোকের সঙ্গে কথা বলতে ভাল লাগে, নিজেকে পাল্টাতে ও নতুন কিছু সৃষ্টি করতে তার উত্সাহ রয়েছে. এই ধরনের শখ দেখে বোঝা যায়, যে, সেই ব্যক্তি ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে ভালভাবেই বেঁচে রয়েছেন. যদি মানুষ পাহাড় চড়তে শখ করে, দাবা খেলে, বেড়াতে যায়, কোন একটা রকমের বই সংগ্রহ করে – এর মানে হল তার ব্যক্তিত্ব অনেক পরিপূর্ণ".

    সংগ্রহকারীদের মধ্যে কম অসাধারন লোক দেখা যায় না – তারা কি শুধু সংগ্রহ করেন না! এক ফরাসী লোক মিশেল পোনা, যেমন ১০০টি জেট প্লেন, ৫০০টি মোটর সাইকেল আর "এবার্ট" কোম্পানীর অনেক গাড়ী সংগ্রহ করেছেন. বিখ্যাত অভিনেতা শ্যন কোন্নরি স্কটল্যান্ডের শখের জন্য পুরুষ মানুষের পরিধেয় জাতীয় পোষাক কেল্ট সংগ্রহ করেছেন অনেক.