তোমস্ক শহরের আঞ্চলিক আদালত এই হিন্দু ধর্মের বইয়ের মন্তব্য সহ রুশ ভাষায় অনুবাদকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করতে চায় নি বলে রিয়া নোভস্তি সংস্থা জানিয়েছে. ২০১১ সালে তোমস্ক শহরের অভিশংসক দপ্তর এখানে সামাজিক কাজে যুক্ত বৈষ্ণব ধর্মীয় বলে আত্ম প্রচার করা ইসকন সংস্থার দপ্তরে তদন্ত করার পরে এই বইয়ের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারী করার আবেদন জানায়. প্রসঙ্গতঃ উল্লেখ্য যে, মূল হিন্দু ধর্ম গ্রন্থ ও বিশ্ব বন্দিত শ্রীমত্ভগবত্গীতা ও তার রুশ অনুবাদ অভিশংসক দপ্তরের আবেদনের আওতায় ছিল না, কারণ এই বইকে রুশ দেশেও সমস্ত সময়েই যথাযোগ্য সম্মান দেওয়া হয়েছে ও তা রাশিয়ার মানব জাতির স্বর্ণ ভাণ্ডারের অংশ বলে স্বীকৃত. ইসকন সংস্থার নানা ধরনের কর্মসূচী আগেও রশ নাগরিকদের মধ্যে প্রতিবাদের কারণ হয়েছিল. বর্তমানে এই সংস্থা ভারত ও পৃথিবীর অন্যান্য দেশে জনমতকে হিন্দু ধর্মের প্রতি অবিচার করা হচ্ছে বলে উত্তেজিত করেছে. তোমস্ক শহরের আদালতে এই প্রসঙ্গে আপাততঃ কোনও মন্তব্য করা হয় নি, শুধু বলা হয়েছে যে, বইটিকে এখন নিষিদ্ধ করা হবে না, এর উপরে আরও বিশদ করে পরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে. ভারতীয় ধর্ম সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞদের মতামত সম্পূর্ণ ভাবে সংগৃহীত হলেই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবে. ইসকন মস্কো ও অন্যান্য রাশিয়ার শহরেও ভারতীয় কূটনৈতিক মহলকে ব্যবহার করে আপাততঃ নিজেদের কাজকর্মের সুবিধা করে নিয়েছে. রুশ জনগন ও সরকার ভারতের প্রতি মৈত্রীর আদর্শে বিশ্বাসী হওয়ার সুযোগ নিয়ে এই ধরনের সংস্থা এখানেও নানা ধরনের সন্দেহ উদ্রেক করার মতো কাজ করে যাচ্ছে.