0ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস.এম.কৃষ্ণা গতকাল ভারতে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকসান্দর কাদাকিনের সাথে সাক্ষাত করেন এবং তোমস্ক শহরে আদালতের রায়ের ব্যাপারে ভারতের দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেন. তোমস্কের আদালতে প্রাচীন ধর্মীয়-দার্শনিক গ্রন্থ গীতাকে উগ্রপন্থী সাহিত্য বলে অভিহিত করা হচ্ছে. রিয়া নোভোস্তি সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, যে ভারতীয় পক্ষ রুশ সরকারকে অনুরোধ করেছে, যাতে তারা এই সমস্যা সমাধানের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করে. রাষ্ট্রদূত আলেকসান্দর কাদাকিন কথা দিয়েছেন, যে রাশিয়ার সরকার ও পররাষ্ট্রদপ্তর আইনের আওতায় এই সমস্যার নিষ্পত্তির জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবে. আমরা ইতিপূর্বে জানিয়েছি, যে গত জুন মাসে তোমস্কে স্থানীয় ইস্কনের শাখার কার্যকলাপ নিয়ে আদালতে মামলা করা হয়. আদালত ভাগবত গীতার তৃতীয় সংস্করণ, যেখানে ইস্কনের প্রতিষ্ঠাতা স্বামী প্রভুপাদের টীকা ও মন্তব্য আছে, তাকে উগ্রপন্থী সাহিত্যের তালিকার অন্তর্ভুক্ত করা উচিত কিনা, তারই বিচার করছে.