১৪ কোটি ২৮ লক্ষ ৫৭ হাজার – রাশিয়ায় সর্বশেষ আদমসুমারির এটাই চূড়ান্ত ফলাফল. অধিবাসীদের গড় বয়স – ৩৯ বছর. ২০১০ সালে সংগৃহীত আদমসুমারির ফলাফল আজ “রাসিস্কায়া গাজিয়েতা” সংবাদপত্র প্রকাশ করেছে.

     জনসংখ্যার দিক থেকে রাশিয়ার রেটিং আরও একধাপ নেমেছে. এর আগেরবার ২০০২ সালে আদমসুমারির সময় বিশ্বে রাশিয়া সপ্তম স্থান অধিকার করেছিল, বর্তমানে অষ্টম স্থানে. জনসংখ্যা কমেছে ২৩ লক্ষ.

     আগের মতোই রাশিয়ার তুলনায় জনসংখ্যার দিক থেকে চীন, ভারত, আমেরিকা, ইন্দোনেশিয়া, ব্রাজিল ও পাকিস্তান অনেক এগিয়ে আছে, আর এবার বাংলাদেশও আমাদের টপকে গেছে. সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গ্রামীন জনসংখ্যা. শহরের জনসংখ্যার তুলনায় গ্রামের জনসংখ্যা তিনগুন বেশি কমেছে.

    পুরুষ ও নারীর সংখ্যার অনুপাতে তেমন কোনো রদবদল হয়নি, তবে নারীর সংখ্যার অনুপাত ক্রমবর্ধমান. বর্তমানে রাশিয়ায় নারীর সংখ্যা পুরুষের তুলনায় ১ কোটি ৭ লক্ষ বেশি. জনগনের আয়ুও বাড়ছে. আদমসুমারি অনুযায়ী, রুশবাসীদের বর্তমানে গড় বয়স ৩৯ বছর, ২০০২ সালে ছিল ৩৭,৭ বছর.