রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন মনে করেন যে, যদি লোকেদের জন্য নিজের দৃষ্টিভঙ্গী প্রকাশে সম্ভাবনার উদ্ভব হল “পুতিন শাসনের ফলাফল”, তাহলে এটা স্বাভাবিক. বৃহস্পতিবার প্রত্যক্ষ সম্প্রচারের সময় পুতিন বলেন, “লোকে যে দেশের ঘটনাবলি সম্পর্কে, অর্থনীতির ক্ষেত্রে, সামাজিক ক্ষেত্রে, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে নিজের দৃষ্টিভঙ্গী প্রকাশ করছে – এটা একেবারে স্বাভাবিক ব্যাপার. যতক্ষণ পর্যন্ত সবকিছু আইনের কাঠামোতে থাকবে, আর আমি তার উপর ভরসা রাখছি, সবকিছু ঠিকই হবে”. পুতিনের কথায়, তিনি “টেলিভিশনের পর্দায় দেখেছেন” যে, প্রধাণত তরুণরা “সক্রিয়, তাদের নিজস্ব স্থিতি আছে যা তারা স্পষ্ট ও সঠিকভাবে সূত্রবদ্ধ করে”. তিনি যোগ করে বলেন, “আমাকে তা আনন্দিত করে, এবং এটা যদি “পুতিনের শাসনের” ফল হয়, তাহলে এটা ভালই, এতে এমন কিছু দেখতে পাচ্ছি না, যা অভাবনীয়”. একই সঙ্গে তিনি বলেন যে, রাশিয়ায় পার্লামেন্টারী নির্বাচনের ফলাফল দেশে শক্তির বাস্তব বিন্যাস প্রতিফলিত করছে. রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন এই দশম বার “প্রত্যক্ষ সম্প্রচারে” রাশিয়াবাসীদের সাথে আলাপ করছেন “ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে সংলাপ. ক্রমানুবর্তন” নামে অনুষ্ঠানে. এই প্রথম ভ্লাদিমির পুতিন রাশিয়াবাসীদের প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন রাষ্ট্রপতির পদপ্রার্থী হিসেবে থাকা কালে. রাশিয়ায় রাষ্ট্রপতির নির্বাচন হবে ২০১২ সালের মার্চ মাসে. এ সংলাপের সময়ে প্রধানমন্ত্রী তীক্ষ্ণ প্রশ্নাবলির উত্তর দেওয়া এড়িয়ে যেতে চান না, জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর প্রেস-সেক্রেটারি দমিত্রি পেসকোভ.