প্রত্যক্ষ সম্প্রচারে রাশিয়াবাসীদের প্রশ্নের উত্তরে পুতিন বলেন যে, ২০১১ সালে রাশিয়ার অর্থনীতির বৃদ্ধি হবে ৪.২ – ৪.৫ শতাংশ. মুদ্রাস্ফীতি রেকর্ড পরিমাণ কম – ৬ শতাংশের সামান্য বেশি, বেকারী -৬ শতাংশ. দেশে বেতনের বাস্তব বৃদ্ধি ছিল ২.৯ শতাংশ. রাশিয়ায় দৈন্যের সীমারেখার নিচে বাস করে ১২.৫ শতাংশ মানুষ, এবং এ সংখ্যাটি ক্রমশ কমছে. এ ছাড়া, রাশিয়া শস্য রপ্তানির ক্ষমতা পুনর্স্থাপন করেছে এবং এখন সে পৃথিবীতে শস্য বাণিজ্যের ক্ষেত্রে তৃতীয় স্থানের অধিকারী. পুতিনের কথায় রাশিয়ার শস্যের অন্যতম বৃহত্ ক্রেতা হল মিশর. আগে রাশিয়া বিপুল পরিমাণ শস্য কিনত অস্ট্রেলিয়া, ক্যানাডা এবং অন্যান্য দেশে. প্রধানমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন যে, শস্য রপ্তানির ক্ষমতার পুনর্স্থাপন সম্ভব হয়েছে কৃষি ক্ষেত্রের কর্মীদের শ্রম ও প্রতিভা-র কল্যাণ.