ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমনমোহন সিং মনে করেন যে, পৃথিবীতে অর্থনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও ক্রমবর্ধমান রাজনৈতির ঝুঁকির পটভূমিতে ব্রিক্সের বিন্যাসে সহযোগিতার গুরুত্ব বাড়ছে. ভারত ব্রিক্স গ্রুপে রাশিয়ার ভূমিকার উচ্চ মূল্যায়ন করে, “ইন্টারফাক্স” সংবাদ এজেন্সি উদ্ধৃত করেছে শ্রীমনমোহন সিংয়ের কথা, যা তিনি বলেছেন মস্কো সফরের আগে রাশিয়ার সাংবাদিকদের সাথে সাক্ষাতে. ভারতের প্রধানমন্ত্রী ১৫ই থেকে ১৭ই ডিসেম্বর রাশিয়ায় সরকারী সফর করবেন. তাঁর কথায়, ব্রিক্স গ্রুপের দেশগুলির ব্রেটন-উড ইনস্টিটিউটগুলির সংস্কার, বাণিজ্যিক সংরক্ষণশীলতা, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার কাঠামোতে দোহা রাউন্ডের আলাপ-আলোচনা শেষ করা, বিকাশের ক্ষেত্রে সহস্রকের লক্ষ্য (রাষ্ট্রসঙ্ঘের কর্মসূচি) অর্জনের মতো বিষয়ে এবং তাছাড়া বহুমেরু সম্বলিত, ন্যায়সঙ্গত ও গণতান্ত্রিক বিশ্ব ব্যবস্থার গঠনে স্থিতি কাছাকাছি. ব্রিক্সের বিন্যাসে পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ চালাচ্ছে পাঁচটি দেশ – ব্রেজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন এবং দক্ষিণ আফ্রিকা. শ্রী সিং উল্লেখ করেন যে, বর্তমানে ব্রিক্সের কর্মসূচি অর্থনৈতিক কাঠামো ছাড়িয়ে গেছে এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ, আবহাওয়ার পরিবর্তন, খাদ্য ও জ্বালানী নিরাপত্তার মতো প্রশ্ন অন্তর্ভুক্ত করেছে. এটা ঘটছে পৃথিবীতে, এবং বিশেষ করে পশ্চিম এশিয়ায় রাজনৈতিক তীব্রতা বৃদ্ধি এবং নিরাপত্তার জন্য চ্যালেঞ্জের সময়ে. এ উপলক্ষে ব্রিক্সের দেশগুলির জন্য ক্রমেই বেশি গুরুত্ব ধারণ করছে পরামর্শের ফর্মেটে পরস্পরের সাথে ঘনিষ্ঠ ক্রিয়াকলাপ চালানো. ব্রিক্সের পরবর্তী শীর্ষ সাক্ষাত্ অনুষ্ঠিত হবে দিল্লিতে আগামী বছরের মার্চে. শ্রী সিং এ আশা প্রকাশ করেন যে, ভবিষ্যতে ব্রিক্স গ্রুপে সব শরিকের মাঝে সংলাপ আরও বাড়বে.