রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ বিশেষজ্ঞ ও রাজনীতিবিদদের কৌতূহলী করে তুলেছেন. মঙ্গলবারে রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে জয়ী দল গুলির নেতাদের সঙ্গে আলোচনার সময়ে দেশের নেতা ঘোষণা করেছেন যে, দেশে রাজনৈতিক সংশোধনের কাজ চলবে, আর বিরোধী পক্ষ রাষ্ট্রীয় দ্যুমায় নতুন করে পরিষদ গঠনের সময়ে অর্ধেক পরিষদেই নেতৃত্ব দেবে. এখন রাজনীতিবিদেরা পূর্বাভাস হিসাবে বলেছেন যে, ক্ষমতাসীন দল "ঐক্যবদ্ধ রাশিয়াকে" রাষ্ট্রীয় দ্যুমায় এমনকি কিছু প্রধান পদ বিরোধীদের দিয়ে দিতে হবে, আর বর্তমানের রাজনৈতিক ব্যবস্থায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসতে চলেছে.

ঠিক এক সপ্তাহ পরেই – ২১শে ডিসেম্বর নতুন, ষষ্ঠ রাষ্ট্রীয় দ্যুমা প্রথমবার অধিবেশনে মিলিত হবে নির্বাচনের পরে. প্রয়োজনীয় নির্দেশে স্বাক্ষর করেছেন রুশ রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ. এই সম্বন্ধে তিনি নতুন লোকসভায় নির্বাচিত দল গুলির নেতাদের সাথে সাক্ষাত্কারের সময়ে ঘোষণা করেছেন. মস্কো উপকণ্ঠের রাষ্ট্রপতি ভবনে সাক্ষাত্কারের সময়ে নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ও কিভাবে নির্বাচনের পরে রাশিয়ার রাজনৈতিক ব্যবস্থার উন্নতি করা হবে, তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে.

দিমিত্রি মেদভেদেভ আস্থা প্রকাশ করেছেন যে, নির্বাচন পরিষদ ও আদালত গুলি খুঁটিয়ে নির্বাচনে আইন লঙ্ঘণ সংক্রান্ত সমস্ত অভিযোগ পরীক্ষা করে দেখবেন ও ন্যায় সঙ্গত সিদ্ধান্তই নেবেন. কিন্তু এখানে মুখ্য হল – বিরোধী পক্ষের প্রভাবের মাত্রা যেকোন রকমের সিদ্ধান্ত গ্রহণের পক্ষেই অনেক বেশী করে বেড়ে যাবে. প্রশাসনের বিরোধী পক্ষের লোকেরা রাষ্ট্রীয় দ্যুমার পরিষদ গুলির প্রায় অর্ধেক পেয়ে যাবেন – ২৯টির মধ্যে ১৪টি. এই প্রসঙ্গে রাজনীতিবিদ মিখাইল রেমিজোভ মন্তব্য করে বলেছেন:

"রাষ্ট্রপতি আজ যা বলেছেন, তা নিয়ে ভেবে দেখলে, বলা যেতে পারে যে, তিনি প্রস্তাব করেছেন নতুন রাষ্ট্রীয় দ্যুমার কাঠামোর মধ্যে যেমন বিরোধী পক্ষের দিকে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছেন, তেমনই বলেছেন তাদের কথাও, যারা দ্যুমায় বিজয়ী হয়ে আসতে পারেন নি. অংশতঃ এটা হতে পারে পরিষদ ভাগ করার সময়ে, যখন বিরোধী পক্ষের বেশী করে ভূমিকা নেওয়া ও বেশী করে পদ জুটবে".

দিমিত্রি মেদভেদেভ দলগুলির নেতাদের সঙ্গে নির্বাচন ও তার পরে বিরোধী মীটিংয়ের পরে প্রথম দেখা করেছেন. আর বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন যে, রাজনৈতিক সংশোধনের কথা বলতে গিয়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি বাস্তবে সেই সমস্ত লোকেদের প্রশ্নেরই উত্তর দিয়েছেন যারা রাস্তায় নেমেছিলেন. মেদভেদেভ স্বীকার করেছেন যে, "রাজনৈতিক ক্ষেত্রে কাজকর্মের বিষয়ে এতদিন ধরে চলে আসা বাধা নিষেধ তুলে নেওয়ার জন্য আরও জোর দিয়ে সিদ্ধান্ত ও পদক্ষেপ নেওয়া দরকার". এই প্রসঙ্গে রাজনৈতিক কাঠামো অনুসন্ধান কেন্দ্রের প্রধান সের্গেই মিখিয়েভ বলেছেন:

"আমি মনে করি যে, মেদভেদেভ সম্ভবতঃ, প্রাথমিক ভাবে বলছেন রাজনৈতিক দল হিসাবে নথিভুক্ত হওয়ার প্রসঙ্গে বাধা কমিয়ে ফেলা নিয়ে. যার ফলে সম্ভব হবে অনেক বেশী বহুমুখী ভাবে সমাজে যে সমস্ত মনোভাব রয়েছে, তা উপস্থাপন করার. তার ওপরে পরবর্তী নির্বাচনে পার্লামেন্টে অংশ গ্রহণের ক্ষেত্রে ন্যূনতম ভোট পেতে হবে শতকরা সাত শতাংশের জায়গায় পাঁচ শতাংশ".

রাষ্ট্রীয় দ্যুমায় বিরোধী পক্ষের ভূমিকা বাড়ানোর ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে উদ্যোগ ও নতুন রাজনৈতিক সংশোধনের প্রস্তাব সম্বন্ধে বলা যেতে পারে যে, বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেছেন এই কথা যে, বিগত বছর গুলিতে প্রশাসনের পক্ষে স্থিতিশীল রাজনৈতিক ব্যবস্থা তৈরী করা সম্ভব হয়েছে. আর এখন আরও উদার নীতি নেওয়া সম্ভব, তাই স্ট্র্যাটেজিক উন্নয়নের মডেল নির্মাণ কেন্দ্রের সহসভাপতি গ্রিগোরী ত্রোফিমচুক বলেছেন:

"রাশিয়ার পার্লামেন্ট ব্যবস্থা এতটাই মজবুত হয়েছে যে, এই বারের লোকসভাতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে. এই পদক্ষেপ কৃত্রিম ভাবে পরিকল্পিত হয় নি, বরং বলা যেতে পারে যে, এটা হয়েছে একেবারেই স্বাভাবিক ভাবে. দেখা যাচ্ছে যে, নির্বাচনী আইন সংক্রান্ত সংশোধন গ্রহণ ও বাস্তবায়নের ফলে এটা সম্ভব হতে পেরেছে. আর এখন মজবুত ব্যবস্থা নতুন স্তরে উন্নত হতে পারার মতো ক্ষমতা রাখে. কিছু মুখ্য পরিষদ, এমনকি আইন শৃঙ্খলা রক্ষা সংক্রান্ত পরিষদ যে বিরোধী পক্ষের প্রতিনিধিদের নেতৃত্বে তৈরী করা যেতে পারে, সেই রকমের কোন অভিজ্ঞতা আগে ছিল না. কিন্তু আমি মনে করি যে, এখানে কেন রকমের অতিরিক্ত সমস্যা বা কাজ বন্ধ হওয়ার মতো ঘটনা ঘটবে না".

বাস্তবে রাশিয়ার লোকসভা সম্পূর্ণ মূল্যের এক বিতর্কের ক্ষেত্রে পরিনত হতে চলেছে, আর ক্ষমতাসীন দল – "ঐক্যবদ্ধ রাশিয়ার" – প্রয়োজন পড়বে এবারে জোট তৈরী করার, যাতে মৌল সিদ্ধান্ত গুলি নেওয়া সম্ভবপর হয়. তাছাড়া প্রশাসন বর্তমানে সমাজে গুণগত পরিবর্তন নিয়ে যে দাবী উঠেছে, তা পালন করতে তৈরী হয়েছে. মনে করিয়ে দেওয়া যেতে পারে যে, প্রশাসন ইতিমধ্যেই একাধিকবার বুঝিয়ে দিয়েছে যে, রাশিয়ার নির্বাচনী ব্যবস্থায় অধিকাংশ ভোটে নির্বাচনের ব্যবস্থা এবং রাজ্য গুলির রাজ্যপাল নির্বাচনের ব্যবস্থাও প্রয়োজনে ফিরিয়ে আনা হতে পারে.