মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ঘনিষ্ঠ শরিকানার সম্পর্ক বজায় রাখবে স্বতন্ত্র ও সার্বভৌম ইরাকের সাথে, এ দেশ থেকে মার্কিনী বাহিনী অপসারণের পরে. এ সম্বন্ধে বলেছেন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা ইরাকের প্রধানমন্ত্রী নুরী আল-মালিকির সাথে সাক্ষাতের ফলাফলের ভিত্তিতে. তিনি যোগ করে বলেন, “প্রায় নয় বছর পরে আমাদের যুদ্ধ শেষ দিকে পৌঁছেছে”, এবং উল্লেখ করেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইরাক ভবিষ্যতেও সামরিক, বেসামরিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে “সমানাধিকারী শরিকানার সম্পর্কে” আবদ্ধ থাকবে. হোয়াইট হাউজের প্রতিনিধির কথায়, ইরাক বর্তমানে ১৮টি “এফ-১৬” মার্কা ফাইটার বিমান কেনার কথা বিবেচনা করছে মার্কিনীদের চলে যাওয়ার পরে নিজের আকাশ সীমানায় নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে. আশা করা হচ্ছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০১১ সাল শেষ হওয়ার আগে ইরাক থেকে নিজের সৈন্য অপসারণ শেষ করবে. ইরাকী প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ইরাকের বিপুল সম্পদ রয়েছে, আমাদের প্রয়োজন অভিজ্ঞতা ও প্রকৌশলের, যাতে ঠিকভাবে নিজেদের সম্পদ ব্যবহার করতে পারি, আর আমেরিকানরা আমাদের এ ব্যাপারে সাহায্য করতে পারে”.