২০১২-২০১৭ সালে প্রতিরক্ষার উদ্দেশ্যে ভারতের খরচ হবে প্রায় ১০ হাজার কোটি ডলারের মতো. এ অর্থ ব্যবহৃত হবে নতুন নতুন অস্ত্রশস্ত্র কেনার জন্য এবং দেশের প্রতিরক্ষাত্মক পরিকাঠামো বিকাশের জন্য. তাছাড়া, পাকিস্তান ও চীনের সাথে সীমানায় সামরিক বাহিনী বৃদ্ধির পরিকল্পনা আছে, দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উত্সকে উদ্ধৃত করে এ সম্বন্ধে জানিয়েছে “টাইমস অফ ইন্ডিয়া” পত্রিকা. ভারত সরকারের দ্বারা ইতিমধ্যে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দেশের উত্তর-পুবে গঠিত হবে নতুন নতুন আঘাত হানার বাহিনী. চীনের সাথে সীমানার কাছে বিমান ঘাঁটিগুলিতে মোতায়েন করা হবে “সু-৩০এম.কা.ই” মার্কা বহুলক্ষ্যসম্বলিত ফাইটার বিমান. ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সাড়ে তিন হাজার কিলোমিটার পাল্লার “অগ্নি-৩” ব্যালিস্টিক রকেট সৈন্যবাহিনীতে যুক্ত করার জন্য এবং “অগ্নি-৫” মার্কা আন্তর্মহাদেশীয় রকেটের পরীক্ষা চালানোর জন্য প্রস্তুত হচ্ছে. তা পাকিস্তান ও চীনের ভূভাগে ৫ হাজার কিলোমিটার দূরত্বে লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম.