রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন যে, গত শনিবার মস্কোয় বলোতনি স্কোয়ারে শনিবার অনুষ্ঠিত বিরোধীপক্ষের জনসভায় প্রস্তাবিত ধারণা সমর্খন করেন না. তবে, তিনি ৪ঠা ডিসেম্বর পার্লামেন্টারী নির্বাচনে নিয়ম লঙ্ঘনের সমস্ত খবর পরীক্ষা করার নির্দেশ দিয়েছেন. মেদভেদেভ “ফেসবুকে” নিজের পৃষ্ঠায় লেখেন, “সংবিধান অনুযায়ী রাশিয়ার নাগরিকদের বাক্ স্বাধীনতা এবং সভা-সমিতির স্বাধীনতা রয়েছে. লোকেদের নিজেদের স্থিতি ও মতামত প্রকাশের অধিকার আছে, এবং গতকাল তারা তা-ই করেছে. ভাল কথা যে, সবকিছু আইনসঙ্গতভাবে হয়েছে”. তারপর তিনি জোর দিয়ে লেখেন – “সভায় ধ্বনিত স্লোগান, বিবৃতির সাথে আমি একমত নই. তবুও আমি নির্দেশ দিয়েছি নির্বাচনের আইন পালন সংক্রান্ত নির্বাচনী কেন্দ্রগুলি থেকে আসা সমস্ত খবর পরীক্ষা করার”. শনিবার এবং রবিবার মস্কোয়, পিতারবুর্গে এবং রাশিয়ার অন্যান্য শহরে আন্দোলন হয়েছে, যার অংশগ্রহণকারীরা রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় দুমার নির্বাচনে, তাদের মতে, নিয়ম লঙ্ঘন দূর করার দাবি করেছে. আগে জানানো হয়েছিল যে, ১০ই ডিসেম্বর মস্কোয় বলোতনি স্কোয়ারে সমবেত হয়েছিল ২৫০০০ লোক. সভার আয়োজকরা নিশ্চয়োক্তি করেছেন যে, তারা অন্ততপক্ষে ৪০০০০ লোককে সমবেত করতে সক্ষম হয়েছে. বলোতনি স্কোয়ারের সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পাঁচটি দাবি পেশ করা হয়েছে. এগুলি হল – রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি (কথা হচ্ছে আগে বিরোধীপক্ষের অননুমোদিত সভার সময় আটক করা ব্যক্তিদের), রাষ্ট্রীয় দুমার নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করার, কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিশনের প্রধান ভ্লাদিমির চুরোভের পদত্যাগ, সমস্ত রাজনৈতিক পার্টিকে রেজিস্ট্রি করার এবং নতুন পার্লামেন্টারী নির্বাচন আয়োজন করার.