সংযুক্ত আরব আমিরাতে চিকিত্সাধীন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারধারী হয়ত মাতৃভুমিতে ফিরে আসবনে না।পাকিস্তানী গনমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়,রাষ্ট্রের সাথে বিশ্বাসঘতকতা করায় তাকে আদলতের শরনাপন্ন হতে হবে।সংবাদে বলা হয়,গত ৭ ডিসেম্বর শারীরিক চিকিত্সার উদ্দেশ্যে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতে যান এবং স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি হন।পরে অবশ্য যানা যায়,জারদারীর শরীরে ইনসুলিনের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়,যার ফলে তার মুখের আংশিক ভাগ পক্ষাঘাত রোগ ছড়িয়ে পড়ে।এদিকে জারদারী চিকিত্সার উদ্দেশ্যে পাকিস্তান ত্যাগ করায় দেশটিতে ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছেন।এরই মধ্যে শোনা যাচ্ছে যে পাকিস্তানে হয়তবা  সামরিক বিপ্লব ঘটতে পারে যা প্রেসিডেন্টকে বিদেশে গমনে বাধ্য করেছে।হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পূর্বে জারদারীকে নিয়ে ব্যাপক হট্রগোল শুরু হয় যখন তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতায় নিজের অনুগতদেরকে দেশটির সেনাবাহিনীর শীর্ষ  কর্মকর্তা ও গোয়েন্দা বিভাগে নিযুক্ত করেন।বর্তমানে পাকিস্তানের উচ্চ আদালত দুর্নীতির দায়ে জারদারী ও তার সহযোগিরা গ্রেফতারের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন করছেন  বলে জানা যায়।