রয়টার সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, যে উপ-রাষ্ট্রপতির অনুমতিক্রমে ইয়ে্মেনে নতুন সরকার গঠিত হয়েছে. ঐ সরকারে যোগ দিয়েছে যেমন প্রাক্তণ রাষ্ট্রপতিআলি আবদেল্লা সালেহের নেতৃত্বাধীন সার্বজনীন গণকংগ্রেস পার্টির সদস্যরা, তেমনই বিরোধীপক্ষের সদস্যরা. মন্ত্রীসভা গঠিত হয়েছে ইতিপূর্বে গৃহীত সম্মতিপত্র মেনে. রিয়া এজেন্সি সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, যে ঐ সম্মতিপত্র অনুযায়ী সার্বজনীন গণকংগ্রেস পার্টির সদস্যরা পাচ্ছে প্রতিরক্ষা দপ্তর, পররাষ্ট্র দপ্তর, যোগাযোগ, খনিজ তেল ও সামাজিক কর্মকান্ড দপ্তর. বিরোধীপক্ষের প্রতিনিধিদের ভাগে জুটেছে স্বরাষ্ট্র দপ্তর, অর্থ দপ্তর, পরিকল্পনা ও তথ্য দপ্তর. জানানো হয়েছে, যে প্রাক্তণ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুবাকার আল-কিরবি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মেদ নাসের আহমেদ তাদের পুরনো পদে পুণর্বহাল হয়েছেন. মন্ত্রীসভার নেতৃপদে আসীন হয়েছেন বিরোধীপক্ষের মোহাম্মেদ বাসিন্দভা. গত ২৩শে নভেম্বর সৌদী আরবে ইয়েমেনের প্রাক্তণ রাষ্ট্রপ্রধান, যিনি ৩০ বছর ধরে শাসন করেছেন, অবশেষে বিরোধীপক্ষের প্রতিনিধিদের সাথে ক্ষমতা হস্তান্তর করার সম্মতিপত্র স্বাক্ষর করেন. ইতিপূর্বে তিনি তিনবার প্রথমে সম্মত হয়েও পরে পদত্যাগ করতে অস্বীকার করেছিলেন. ঐ চুক্তিপত্রের অন্যতম শর্ত ছিল নতুন মন্ত্রীসভা গঠন. দেশে শান্তি পূণর্স্থাপণের স্বার্থে রাষ্ট্রপতি তখন পদত্যাগ করতে সম্মত হন.