ভারী বিমানবাহী “অ্যাডমিরাল কুজনেতসোভ” ক্রুজারের নেতৃত্বে রাশিয়ার নৌবাহিনীর একসারি জাহাজ ২০১২ সালের বসন্তে সিরিয়ায় তার্তুস বন্দরে রাশিয়ার বিদেশী নৌঘাঁটি সফর করবে. এ সম্বন্ধে সোমবার লিখেছে রাশিয়ার “ইজভেস্তিয়া” পত্রিকা. রাশিয়ার নৌবাহিনীর মুখ্য দপ্তরের প্রতিনিধি ব্যাখ্যা করে বলেন যে, তার্তুস বন্দরে রাশিয়ার জাহাজগুলির যাত্রাকে সিরিয়ায় বর্তমান ঘটনাবলি সম্পর্কে কোনো ধরণের সঙ্কেত হিসেবে বিবেচনা করা উচিত্ নয়. এ যাত্রা পরিকল্পিত হয়েছিল ২০১০ সালে, যখন সিরিয়ায় এমন কোনো ঘটনাবলির আভাষও ছিল না. এ যাত্রা বিশদে প্রস্তুত করা হয়েছিল এবং তা বাতিল করা বা তার সময় পরিবর্তন করার কোনো কারণ নেই, বলেন পত্রিকার সংলাপী. তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, তার্তুস ছাড়া এ জাহাজগুলির লেবাননের বেইরুট, ইতালির জেনোয়া এবং সাইপ্রাস সফরের পরিকল্পনা আছে. যাত্রা শুরু হবে ডিসেম্বর মাসের গোড়ার দিকে. এই “অ্যাডমিরাল কুজনেতসোভ” জাহাজ বারেন্তস সাগর থেকে রওনা হবে এবং বড় সাবমেরিনবিরোধী জাহাজ “অ্যাডমিরাল চাবানেনকো” তার সঙ্গে থাকবে. তার্তুসের ঘাঁটি ব্যবহৃত হয় জাহাজের টেকনিক্যাল সার্ভিসের জন্য, বিশেষ করে কৃষ্ণসাগরীয় নৌবাহিনীর জন্য. এই নৌঘাঁটিতে কাজ করছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রায় ৬০০ সামরিক ও বেসামরিক কর্মী, এখন সেখানে রাশিয়ার কোনো জাহাজ নেই.