ইয়েমেনের রাজধানী সানায় তাগইর চকে দেশের রাষ্ট্রপতি আলি আব্দাল্লা সালেহ-র সাথে রাজনৈতিক চুক্তি স্বাক্ষরের বিরোধীদের ব্যাপক জনসভা হচ্ছে. এর অংশগ্রহণকারীরা – “ইয়েমেন বিপ্লবের যুব কমিটির” পক্ষসমর্থকরা – সালেহ-কে সামরিক অপরাধের জন্য আদালতে সোপর্দ করার দাবি করছে. যুব আন্দোলনের সরকারী প্রতিনিধি সালেহ আন-নাওমান “আল-জাজিরা” টেলিভিশন স্টেশনকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বিরোধী “গণতান্ত্রিক ফোরাম” পার্টির নিন্দে করেন, যে পার্টি এর-রিয়াদে শাসন ক্ষমতা হস্তান্তর সংক্রান্ত আপোষের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে. তাঁর কথায়, পারস্য উপসাগরীয় আরব রাষ্ট্রগুলির সহযোগিতা পরিষদের মধ্যস্থতার উদ্যোগ রাষ্ট্রপতিকে সুযোগ দিচ্ছে “দায়িত্ব এড়ানোর”. এ দলিল অনুযায়ী, সালেহকে আদালতী বিচার থেকে রেহাই দেওয়ার গ্যারান্টি দেওয়া হচ্ছে. ইয়েমেন সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদকের বিশেষ প্রতিনিধি জামাল বেন ওমরের মতে, বুধবার এর-রিয়াদে স্বাক্ষরিত চুক্তি “বিপদের সীমারেখায় সঙ্কট থামিয়েছে এবং রূপান্তরের পথ উন্মুক্ত করেছে”.