রাশিয়া রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সংলাপ চালিয়ে যেতে প্রস্তুত, এই কথা বুধবার বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ. তবে, মস্কোর পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ভর করবে বাস্তব ঘটনা পরম্পরার উপরেই. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিষয়ে আইন সঙ্গত কোনও চুক্তির অবর্তমানে রাশিয়া নিরস্ত্রীকরণ এবং অস্ত্রসজ্জার নিয়ন্ত্রণে পরবর্তী পদক্ষেপ প্রত্যাখান করার জন্য নিজের অধিকার বজায় রাখবে, এই কথা জোর দিয়ে বলেন রাষ্ট্রপতি. বুধবার মেদভেদেভ ইউরো-রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সংক্রান্ত ব্যবস্থার সমস্যা নিয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং সশস্ত্র বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন কালিনিনগ্রাদে রকেট আক্রমণের সতর্কতা দানের রেডিও নির্ণয় ও অবলোকন কেন্দ্রকে সামরিক আওতায় আনার এবং স্ট্র্যাটেজিক পারমাণবিক ক্ষমতার প্রকল্পগুলির সংরক্ষণ ব্যবস্থা বৃদ্ধি করার. তাছাড়া, রাষ্ট্রের নেতা উল্লেখ করেন যে, “রাশিয়ার আকাশ ও মহাকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সৃষ্টির কাঠামোতে সর্ব প্রথমে স্ট্র্যাটেজিক পারমাণবিক ক্ষমতার প্রকল্পগুলির সংরক্ষণ ব্যবস্থা বৃদ্ধি করার” সিদ্ধান্ত তিনি গ্রহণ করেছেন. প্রয়োজন হলে রাশিয়া দেশের পশ্চিমে এবং দক্ষিণ দিকে আধুনিক আঘাত হানার ব্যবস্থা মোতায়েন করবে, যা ইউরো-রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার প্রতিরোধকে সুনিশ্চিত করবে, বলেছেন রাষ্ট্রপতি. বুধবার দিনের বেলা তিনি ইউরোপে মার্কিনি রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের প্রত্যুত্তরে ব্যবস্থা গ্রহণ সম্পর্কে বিশেষ বিবৃতি দিয়েছেন. রাষ্ট্রপতি আগের মতই মনে করেন যে, ইউরোপে একসঙ্গে বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাগ করে নিয়ে রকেট বিরোধী ব্যবস্থা নেওয়া হলে তা রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সত্যিকারের সহযোগিতার দিগন্ত উন্মোচন করতে পারতো. তা স্বত্ত্বেও মার্কিন ও ইউরোপীয় ন্যাটো জোটের দেশ গুলি রাশিয়ার উদ্বেগকে হিসাবের মধ্যে নিতে চাইছে না, এই প্রসঙ্গে মস্কোর পক্ষ থেকে সমস্ত সম্ভাবনাকেই বাধ্য হয়ে খুলে রাখতে হচ্ছে পরবর্তী কালে নিরস্ত্রীকরণ ও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সমস্ত রকমের চুক্তি করার সম্ভাবনাকেই বাতিল করে দিয়ে. বুধবারে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি এই প্রসঙ্গে মুখ খুলতে বাধ্য হলেন.