দক্ষিণ কোরিয়ার সশস্ত্র বাহিনী উত্তর কোরিয়ার সামুদ্রিক সীমানার কাছে সমুদ্রে, আকাশে এবং স্থলভাগে সামরিক মহডা চালাবে. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদর দপ্তরগুলির অধিকর্তাদের কমিটির প্রতিনিধিরা. এ সামরিক মহড়া শুরু হবে বুধবার. দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়োনফেন্ডো দ্বীপের উপর উত্তর কোরিয়ার গোলাবর্ষণের ঠিক এক বছর পরে এ মহড়া হচ্ছে. দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক অধিনায়কমন্ডলী জানিয়েছেন যে, মহড়ার সময় ইয়োনফেন্ডো দ্বীপের উপর আর্টিলারীর গোলাবর্ষণ প্রতিবিম্বিত হবে এবং দক্ষিণ কোরিয়ার অন্য দ্বীপ পেন্নিয়োন্ডো দ্বীপে সৈন্য অবতরণের চেষ্টা করা হবে. এ মহড়ার উদ্দেশ্য হল উত্তর কোরিয়ার তরফ থেকে সম্ভাব্য আক্রমণের ক্ষেত্রে দক্ষিণ কোরিয়ার বাহিনীর প্রত্যুত্তরী ক্রিয়াকলাপের ফলপ্রসূতা পরীক্ষা করা. মহড়ায় অংশগ্রহণ করবে ফাইটার বিমান, ডেস্ট্রয়ার জাহাজ, এবং তাছাড়া সামুদ্রিক আর্টিলারী, যা ইয়োনফেন্ডো দ্বীপের ঘাঁটিতে রয়েছে. সৈন্যবাহিনীকে অথিরিক্ত যুদ্ধপ্রস্তুতির অবস্থায় আনা হয়েছে.