আফগানিস্তানে সরকার গ্যাসের দাম বাধ্যবাধক করার চেষ্টা করায় গৃহস্থালির জন্য ব্যবহৃত তরল গ্যাসের সংকট দেখা দিয়েছে. রিয়া নোভোস্তি সংবাদসংস্থা আজ এই সংবাদ জানিয়েছে. সংকটের উদ্ভব হয়েছে এই কারনে, যে আফগানিস্তানের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী নোয়ার উলহক গ্যাসের খুচরো দাম বাধ্যবাধক করে দিয়েছেন(১ ডলার ৩৪ সেন্ট-১ কিলোগ্রাম)এবং বেশ কয়েকটি গ্যাস আমদানীকারী কোম্পানির কার্যকলাপ বন্ধ করে দিয়েছেন. এই কাবুল সহ দেশের সব বড় শহরে গ্যাসের চরম অভাব দেখা দিয়েছে. শীত পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সব বড় আফগানি শহরে ব্যাপক হারে বাড়ি গরম রাখার জন্য তরল গ্যাসের ব্যবহার শুরু হয়েছে. গ্যাসের খুচরো দাম বেঁধে দেওয়ায় আমদানীকারী কোম্পানিগুলি দেশে গ্যাস সরবরাহ করতে অস্বীকার করেছে, সেই কারনে কাবুলে এক কিলোগ্রাম তরল গ্যাসের দাম আকাশছোঁয়া (২ ডলার ৪৩ সেন্ট)হয়েছে. গতকাল কাবুলে দেশের চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি খান জান আলোকোজাই সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করেছেন, যে সরকারের বেসরকারি শিল্প প্রতিষ্ঠানের কাজে বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার নেই. তিনি এই বলে সতর্ক করে দিয়েছেন, যে মন্ত্রণালয় যদি তার নাক গলানো চালাতেই থাকে, তাহলে দেশে তরল গ্যাসের আমদানী পুরোপুরিভাবে বন্ধ হয়ে যাবে. প্রথাগতভাবে আফগানিস্তান কাজাকস্তানে ও উজবেকিস্তানে তরল গ্যাস কেনে, কিন্তু গত কয়েকমাসে রপ্তানীকারী দেশগুলিতে পাইকারি দাম বেড়ে যাওয়ায় গ্যাসের আমদানী ব্যাপকহারে কমে গেছে.