আমেরিকা চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত আর উত্তর কোরিয়াকে খাদ্যদ্রব্য দিয়ে সাহায্য করতে চায় না. আজ দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্র ও বৈদেশিক বাণিজ্য মন্ত্রকের প্রতিনিধি এই কথা জানিয়েছে. ওয়াশিংটনের দৃঢ় বিশ্বাস, যে এই বছরে উত্পাদিত শস্য উত্তর কোরিয়াকে খাদ্যের ঘাটতি কমাতে সাহায্য করবে. তাছাড়া খাদ্যদ্রব্য দিয়ে সাহায্য করার বিষয়ে উত্তর কোরিয়া ও আমেরিকার মধ্যে আলাপ-আলোচনায় কোনো অগ্রগতি হয়নি. সম্প্রতি ইউরোপীয় সংঘ উত্তর কোরিয়াকে ১ কোটি ইউরো মূল্যের খাদ্যদ্রব্য দান করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়ার উপর পিয়ং-ইয়ংকে খাদ্যদ্রব্য দান করার ব্যাপারে চাপ দেওয়া হচ্ছে.