রাশিয়া ভিয়েতনামকে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য ঋণ দেবে. তত্সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে হ্যানয়ে রাশিয়ার প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী ইগর শুভালোভ এবং সমাজতান্ত্রিক ভিয়েতনাম প্রজাতন্ত্রের উপ-প্রধানমন্ত্রী হোয়াঙ্গ চুঙ্গ হাইয়ের সাক্ষাতের সময়. রাশিয়া ও ভিয়েতনাম পারমাণবিক বিদ্যুত্কেন্দ্র নির্মাণ সম্পর্কে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল ২০১০ সালের ৩১শে অক্টোবর. এই “নিনথুয়ান-১” পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রে থাকবে দুটি এনার্জি-ব্লক, যার প্রত্যকটি রিয়াক্টরের ক্ষমতা হবে ১.২ গেগাওয়াট এবং এ রিয়াক্টরগুলি হবে রাশিয়ার প্রকল্প অনুযায়ী হাঙ্গেরী, চীন, স্লোভাকিয়া, চেকিয়া এবং অন্যান্য দেশে তৈরী রিয়াক্টরের মতো. আগে জানানো হয়েছিল যে, ভিয়েতনাম ২০৩০ সাল নাগাদ ১৫ গেগাওয়াট ক্ষমতার একাধিক পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণ করতে চায়. পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য দেশের পাঁচটি প্রদেশে আটটি জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে. এই প্রতিটি জায়গায় চার থেকে ছয়টি এনার্জি-ব্লক তৈরি করা যেতে পারে. এই ঋণের চুক্তি ছাড়া সাক্ষাতের সময় ভিয়েতনামে পারমাণবিক বিজ্ঞান ও প্রকৌশল কেন্দ্র নির্মাণে সহযোগিতা সংক্রান্ত আন্তঃসরকারী চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়েছে.