রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ বৃহস্পতিবার ইন্দোনেশিয়ায় রওনা হচ্ছেন ষষ্ঠ পূর্ব এশীয় শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য. এ সম্মেলনের আলোচ্যসূচিতে অনুমিত আছে এই পূর্ব এশিয়া সমিতির কাঠামোতে সহযোগিতার অবস্থা ও তার আরও বিকাশের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ এবং তাছাড়া জরুরী আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক প্রশ্নাবলি. এ সমিতি গঠিত হয় ২০০৫ সালে "আসিয়ান" দেশগুলির উদ্যোগে. প্রাধান্যমূলক লক্ষ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে এ অঞ্চলে শান্তি, স্থিতিশীলতা ও অর্থনৈতিক প্রস্ফুরণ সুদৃঢ় করা. প্রায়োগিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের প্রধান প্রধান ধারা হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে অর্থ ব্যবস্থা, জ্বালানী ও বিদ্যুত্শক্তি, জরুরী পরিস্থিতিতে প্রতিক্রিয়া, স্বাস্থ্যরক্ষা, শিক্ষা. রাশিয়ার পররাষ্ট্র বিভাগ এ সমিতিকে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিরাপত্তার সর্বাত্মক, ভারসাম্যপূর্ণ ও উন্মুক্ত স্থাপত্য গঠনের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে মূল্যায়ন করে. পূর্ব এশিয়া সমিতি এ অঞ্চলের সব রাষ্ট্রের জন্য সাধারণ চ্যালেঞ্জ ও বিপদ ফলপ্রসূভাবে প্রতিরোধ করতে সক্ষম, বলা হয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে. তাছাড়া অঞ্চলে অর্থনৈতিক সহযোগিতাকেও পরিপ্রেক্ষিতপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে. বর্তমানে এই পূর্ব এশিয়া সমিতিতে অন্তর্ভুক্ত আছে আসিয়ানের দশটি দেশ, রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং কোরিয়া প্রজাতন্ত্র.