কাজাখস্তানের রাষ্ট্রপতি নুরসুলতান নজরবায়েভ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ – মজিলিস ভাঙ্গা সংক্রান্ত নির্দেশনামা স্বাক্ষর করেছেন. প্রাকমেয়াদী নির্বাচন নির্ধারিত হয়েছে ২০১২ সালের ১৫ই জানুয়ারী. আইন অনুযায়ী, মজিলিসের ৯৮ জন প্রতিনিধির নির্বাচন হবে পার্টি-তালিকা অনুযায়ী, সার্বজনীন, সমান ও প্রত্যক্ষ গোপন ভোটদানের ভিত্তিতে. নয়জন প্রতিনিধি নির্বাচিত হবেন কাজাখস্তানের জাতিসমূহের অ্যাসেম্বলির দ্বারা. নির্দেশনামা বলবত্ হচ্ছে তা প্রকাশের দিন থেকে. গত সপ্তাহে মজিলিসের একদল প্রতিনিধি রাষ্ট্রনেতার কাছে আবেদন করেন গণ-প্রতিনিধিদের ক্ষমতা খারিজ করার এবং প্রাকমেয়াদী পার্লামেন্টারী নির্বাচন নির্ধারণ করার অনুরোধ জানিয়ে. সাধারণভাবে মজিলিসের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল ২০১২ সালের আগস্টে, তবে নিম্নকক্ষের ১০৭ জন প্রতিনিধির মধ্যে ৫৩ জন মজিলিস সময়ের আগে ভেঙ্গে দেওয়ার প্রয়োজন বলে বিবেচনা করে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করেন. নিজেদের সিদ্ধান্তের কারণ হিসেবে তাঁরা উল্লেখ করেন এক  পার্টির পার্লামেন্ট থেকে বহু পার্টির পার্লামেন্টে উত্তীর্ণ হওয়ার প্রয়োজনীয়তা. আইন অনুযায়ী, পরবর্তী পার্লামেন্ট গঠিত হওয়া উচিত্ অন্ততপক্ষে দুটি রাজনৈতিক পার্টির দ্বারা. তাছাড়া, প্রতিনিধিরা মনে করেন যে, আগামী বছরে অর্থনৈতিক সঙ্কটের দ্বিতীয় জোয়ার আসবে, যা কাজাখস্তানকে স্পর্শ করতে পারে, তাই অর্থনৈতিক সমস্যা দেখা দেওয়ার আগেই এই নির্বাচনী প্রক্রিয়া শেষ করা উচিত.