মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রাশিয়ার কাছ থেকে আরও ১৮টি “সু-৩০এম.কে.এম” মার্কা ফাইটার বিমান কেনার আশা করে, যা “ব্রামোস” মার্কা রুশ-ভারত ক্রুইজ মিসাইলে সজ্জিত করা যাবে. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার জানিয়েছে রাশিয়ার “ইজভেস্তিয়া” পত্রিকা. মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহমদ জাহিদ হামিদি আজ মঙ্গলবার “ইরকুত” কারখানা পরিদর্শন করছেন, যেখানে ভারতের জন্য “সু-৩০এম.কা.ই” মার্কা ফাইটার বিমান তৈরি করা হচ্ছে. আশা করা হচ্ছে যে, ঐখানেই ১৮টি বহুলক্ষ্য সম্বলিত “সু-৩০এম.কা.এম” মার্কা ফাইটার বিমানের জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে, যা ২০০৯ সালের আগস্টের চুক্তির কাঠামোতে প্রাপ্ত ক্ষেপের মতোই হবে অতিরিক্ত ক্ষেপ. ক্রয়-পরবর্তী সার্ভিস সহ একটি বিমানের মূল্য হবে প্রায় ৫ কোটি ডলার, সামরিক-কূটনৈতিক মহলের এক উত্স “ইজভেস্তিয়া” পত্রিকাকে বলেছেন. পত্রিকার সংলাপীর তথ্য অনুযায়ী, মালয়েশীয় পক্ষ এ সবকিছু ছাড়া রাশিয়ার পক্ষের সাথে আলোচনা করতে চায় “এম” ইন্ডেক্স সম্বলিত “সু-৩০এম.কা” মার্কা নিজের ফাইটার বিমানগুলির আধুনিকীকরণের সম্ভাবনা, যাতে নতুন রকেট বসানো যাবে, সেই সঙ্গে রুশ-ভারত সুপারসোনিক “ব্রামোস” মার্কা রকেটও.