অস্ট্রেলিয়ার কর্তৃপক্ষ ভারতকে ইউরেনিয়াম বিক্রির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে নিজের স্থিতি বদলাতে এবং এ সরবরাহ পুনরারম্ভের প্রশ্ন বিবেচনা করতে প্রস্তুত. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া গিল্লার্ড. অস্ট্রেলিয়ার সরকার প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা সমর্থন করেছে. সরকারের বৈঠকের ফলাফল সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ভারত আন্তর্জাতিক চুক্তি লঙ্ঘনকারী পারমাণবিক অস্ত্রাধিকারী দেশ নয়, লিখেছে “দ্য অস্ট্রেলিয়ান” পত্রিকা.  আগে অস্ট্রেলিয়া ভারতকে যেকোনো রূপে ইউরেনিয়াম বিক্রি করতে অস্বীকার করেছিল কারণ ভারত পারমাণবিক অস্ত্র প্রসার নিরোধের চুক্তি স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করেছে, তাকে বৈষম্যমূলক বলে অভিহিত করে. সরকারের সিদ্ধান্ত অস্ট্রেলিয়ার ইউরেনিয়াম উত্পাদকদের শেয়ারের বৃদ্ধির দ্বারা সমর্থিত হয়েছে. অস্ট্রেলিয়ার “পালাডিন এনার্জি” কোম্পানির শেয়ারের মূল্য ৪ শতাংশ বেড়েছে. আফ্রিকার দেশগুলিতে ইউরেনিয়াম নিষ্কাশন করা এই “পালাডিন এনার্জি” কোম্পানির প্রধান জন বর্শোফ্ফ মঙ্গলবার বলেন যে, কোম্পানি চীনে ইউরেনিয়াম সরবরাহ সম্পর্কে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে. ইউরেনিয়াম উত্পাদনের পরিমাণের দিক থেকে অস্ট্রেলিয়া পৃথিবীতে তৃতীয় স্থানের অধিকারী.