সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ মুয়াল্লেম আরব রাষ্ট্রগুলির লীগে সিরিয়ার সদস্যপদ স্থগিত রাখা সম্পর্কে লীগের সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দে করেন. তিনি একে বেআইনী বলে অভিহিত করেন. সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে লীগের সম্পর্কেরও সমালোচনা করেন, ওয়াশিংটনকে লীগের বেসরকারী সদস্য বলে অভিহিত করে, জানিয়েছে আন্তঃআরব টেলি-চ্যানেল “আল-জাজিরা”. মুয়াল্লেম এ স্থিরবিশ্বাস প্রকাশ করেন যে, রাশিয়া ও চীন সিরিয়া সম্পর্কে নিজেদের স্থিতি বদলাবে না এবং সিরিয়ার বিরুদ্ধে যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে ভেটোর অধিকার ব্যবহার করবে. তাছাড়া সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডামাস্কাসে কাতার, সৌদি আরব ও তুরস্কের কূটনৈতিক মিশনের উপর সরকারের পক্ষসমর্থকদের হানার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেন. গত সপ্তাহে আরব লীগের রাষ্ট্রগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এ সংস্থায় সিরিয়ার সদস্যপদ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন. এমন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে এ জন্য যে, এই দেশের কর্তৃপক্ষ মিছিলকারীদের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক কার্যকলাপ চালাচ্ছে. সিরিয়া সম্পর্কে সিদ্ধান্ত সমর্থন করেছে সংস্থার ২২টি সদস্য দেশের মধ্যে ১৯টি দেশ, লেবানন এবং ইয়েমেন বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করেছে, ইরাক ভোটদান থেকে বিরত থেকেছে.