সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার সদস্য দেশ গুলির মধ্যে অর্থনৈতিক ভেক্টর শক্তিশালী করার প্রয়োজন রয়েছে ও এই সংস্থার এক শক্তিশালী পরিকাঠামোর জাল তৈরী করার দরকার রয়েছে. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন রুশ প্রশাসনের প্রধান ভ্লাদিমির পুতিন সংস্থার দেশ গুলির প্রশাসন প্রধানদের শীর্ষ সম্মেলনে, যা আয়োজন করা হয়েছিল সেন্ট পিটার্সবার্গের উপকণ্ঠে কনস্তানতিন প্রাসাদে.

    রুশ প্রধানমন্ত্রী বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন যে, এটা শুধু সরকারি অংশগ্রহণে বিশালাকৃতি প্রকল্প গুলি নিয়েই বলা হচ্ছে না, বরং সেখানে ক্ষুদ্র ও মাঝারি মাপের শিল্প উদ্যোগও রয়েছে. "ভবিষ্যত শুধু বহু পাক্ষিক আর্থ- বাণিজ্য যোগাযোগের মধ্যেই রয়েছে, পারস্পরিক ভাবে বিনিয়োগ বৃদ্ধির মধ্যেও", - নিজের বক্তৃতার সময়ে বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন, তিনি বলেছেন:

    "সম্মিলিত শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে আমরা সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কাজকে গুণগত ভাবে এক অন্য স্তরে নিয়ে যেতে পারি. এখানে এক লক্ষ্যের অভিলাষ রয়েছে – আমাদের সংস্থাকে বিশ্বের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্থাপত্যের এক ভিত্তি মূলক কাঠামোতে পরিনত করা, আঞ্চলিক জোট গুলির পারস্পরিক প্রক্রিয়ার জন্য এক ফলপ্রসূ মঞ্চে পরিনত করা, প্রতিবেশী দেশ ও সংস্থা গুলির সঙ্গে আলোচনা বৃদ্ধি করার জায়গা তৈরী করা. এটা এখনই বেশী করে দরকার, যখন বিশ্বের অর্থনীতিতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে খুবই অস্বাভাবিক সব লক্ষণ. আর আমরা পারি আর তা করাও উচিত্ হবে উদ্ভূত সমস্যা গুলির সমাধানে সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে".

    ভ্লাদিমির পুতিন এই সেন্ট পিটার্সবার্গের বৈঠকে প্রস্তাব করেছেন সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার এক শক্তিশালী পরিকাঠামোর জাল তৈরীর, যা দেশ গুলির অর্থনীতি ও নতুন বৃদ্ধির কেন্দ্র তৈরীর জন্যই প্রয়োজন. যা একই সঙ্গে সাহায্য করবে এই অঞ্চলের বিস্তৃত অন্য দেশে পরিবহনের ক্ষমতাকে ও তাদের ভূমিকাকে ইউরোপ ও এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মধ্যে যোগাযোগের অঙ্গ বলে মজবুত করবে.

    সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার মধ্যে পরিকাঠামো সংক্রান্ত কাজের বাস্তবায়নের জন্য কাজাখস্থানের প্রধানমন্ত্রী কারিম মাসিমভ প্রস্তাব করেছেন আন্তর্দেশীয় সংরক্ষণ ব্যাঙ্ক তৈরী করার.

    নিজেদের পক্ষ থেকে চিন তৈরী রয়েছে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার দেশ গুলিকে বিনিয়োগের বিষয়ে সাহায্য করতে, তার মধ্যে ছাড় সমেত বিনিয়োগও রয়েছে, যাতে পরিকাঠামো সংক্রান্ত প্রকল্প গুলি বাস্তবায়ন করা যায়, এই কথা ঘোষণা করেছেন চিন গণ প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রীয় সভার প্রধানমন্ত্রী ভেন জিয়াবাও. "আমরা কাজাখস্থানের প্রস্তাবিত ট্রান্স ইউরোপ এশিয়া খনিজ তেল পরিবহন পাইপ লাইন ও বিদ্যুত পরিবহন ব্যবস্থাকে সমর্থন করছি. আমরা উজবেকিস্তান ও তাজিকিস্তানের প্রস্তাবকে ও সমর্থন করছি সীমান্ত পার হয়ে সড়ক ও রেল পথ তৈরী করে সদস্য দেশ গুলির মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি করার. আর তৈরী আছি আর্থিক সাহায্য করতেও, তার মধ্যে থাকছে সস্তা ঋণও". এই কথা বলেছেন ভেন জিয়াবাও সেন্ট পিটার্সবার্গ শহরে. তাছাড়া, তিনি প্রস্তাব করেছেন সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা উন্নয়ন ব্যাঙ্কের ধারণা তৈরী করার ও পারস্পরিক বাণিজ্যে দ্বিপাক্ষিক জাতীয় মুদ্রা ব্যবহার কে বিস্তৃত ভাগে প্রয়োগের.

    বিনিয়োগের ব্যবস্থা গুলিকে অর্থনৈতিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে আরও উন্নত করার অর্থ সম্বন্ধে উল্লেখ করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন, তিনি বলেছেন:

    "আন্তর্ব্যাঙ্ক জোট সম্বন্ধে যা বলা যেতে পারে, তা হল মাঝারি সময়ের ভবিষ্যতের জন্য তাদের উন্নতির স্ট্র্যাটেজি. এই ক্ষেত্রে প্রাধান্য গুলি – পরিকাঠামো সংক্রান্ত প্রকল্প গুলিকে সহায়তা, উদ্ভাবনী ও রসদ সংযুক্ত করার প্রযুক্তিকে ব্যবহার. আর বিশেষ করে উল্লেখ করবো – পারস্পরিক হিসাবের ক্ষেত্রে জাতীয় মুদ্রার ব্যবহার বাড়ানো. মস্কো, সাংহাই ও হংকং এর বড় তহবিলের বাজারকে ব্যবহার করা আরও বিনিয়োগ টানার জন্য".

    উত্তরের রাজধানীতে বর্তমানের সাক্ষাত্কারে কথা হয়েছে জ্বালানী শক্তি সংক্রান্ত সহযোগিতার ক্ষেত্র নিয়ে. আর ভ্লাদিমির পুতিন, অংশতঃ ঘোষণা করেছেন যে, সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কাঠামোর মধ্যেই জ্বালানী শক্তি ক্লাব খোলা হবে, যাতে সদস্য দেশ গুলি ছাড়াও সহকর্মী সংস্থা গুলিও.

    সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা খোলা হয়েছে পারস্পরিক ভাবে লাভজনক সহযোগিতার জন্যই. এই সংস্থার ভৌগলিক সীমানা প্রসার সম্বন্ধে যা বলা যেতে পারে তা হল, রাশিয়া ইতিবাচক ভাবেই বিভিন্ন দেশের এই সংস্থার কাজে নানা রকমের অধিকার নিয়ে প্রবেশের সম্ভাবনাকে ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখে থাকে, উল্লেখ করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন.

    প্রসঙ্গতঃ বলা যেতে পারে যে, বর্তমানের বৈঠকে ঐস্লামিক প্রজাতন্ত্র পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রেজা গিলানি ও ভারতের প্রতিনিধিরা আবারও ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন সম্পূর্ণ সদস্য হিসাবে এই সংস্থার কাজে অংশ নেওয়ার. এই প্রশ্নের সমাধান সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার রাষ্ট্রপ্রধানদের পরবর্তী বৈঠকেই হয়ে যেতে পারে.