পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জারদারী এবং হামিদ কার্জাই আফগানিস্তানের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বুর্খানুদ্দীন রাব্বানির হত্যার তদন্তে সহযোগিতা করতে চান. ইস্তাম্বুলে এ দু দেশের রাষ্ট্রপতিদের সাক্ষাতের ফলাফলের ভিত্তিতে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রপতি আব্দুল্লাহ গিউল. তিনি যোগ করে বলেন, “আমি আশা করি যে, এ সহযোগিতায় ফল পাওয়া যাবে”. আগে আফগানিস্তান দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির হত্যার তদন্তে সহযোগিতায় অনিচ্ছার জন্য পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিল. তুরস্কের মধ্যস্থতায় পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতিদের সাক্ষাত্ অনুষ্ঠিত হয় আফগানিস্তান সম্পর্কে ইস্তাম্বুল সম্মেলন শুরু হওয়ার প্রাক্কালে. এ সম্মেলনে প্রধান আলোচ্য বিষয় হবে ন্যাটো বাহিনীর অপসারণের পরে আফগানিস্তানে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা সুনিশ্চিত করা. সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবে আফগানিস্তান, চীন, ভারত, ইরান, পাকিস্তান, রাশিয়া, সৌদি আরব, তুরস্ক এবং ঐক্যবদ্ধ আরব এমীরতন্ত্রের প্রতিনিধিরা. তাছাড়া, নিজের প্রতিনিধিদের পাঠাবে জার্মানি, ফ্রান্স এবং অন্য কিছু দেশ. সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে চেয়েছিলেন মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টন, তবে, তাঁর মায়ের মৃত্যুর জন্য তিনি আসন্ন সমস্ত সফর বাতিল করেছেন.