রাশিয়া থেকে প্রকাশিত ফোর্বস জার্নালের সংখ্যায় ৫০ জন রুশ মানুষের কথা বলা হয়েছে, যাঁরা "বিশ্ব জয়ী". তাঁদের মধ্যে রয়েছেন ব্যবসায়ী, বিজ্ঞানী, খেলোয়াড় ও সাংস্কৃতিক জগতের বিখ্যাত মানুষ.

    দশ জন বড় বিজ্ঞানীদের মধ্যে রয়েছেন – পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আন্দ্রেই গেইম ও কনস্তানতিন নোভোসেলভ ও তাঁদের সহকর্মীরা, যাঁরা বিশ্বের সেরা গবেষণা কেন্দ্র গুলিতে কাজ করছেন. এঁদের মধ্যে মাত্র একজন বিখ্যাত গণিতজ্ঞ গিওর্গি পেরেলমান রাশিয়াতে সেন্ট পিটার্সবার্গের প্রত্যন্তে এক খুবই সাধারন ফ্ল্যাটে থাকেন. তিনি আরও এই কারণে বিখ্যাত যে, পুয়ানকারে থিওরেম সমাধানের জন্য প্রাপ্য এক মিলিয়ন ডলার প্রত্যাখ্যান করেছেন. বিজ্ঞানীরা ফোর্বস জার্নালের এই তালিকায় রয়েছেন তাঁদের রাশিয়ার বাইরের সাফল্যের জন্যই. আর এখানে প্রধান হয়েছে তাঁদের রোজগার নয়, সেই সমস্ত অসাধারণ আবিষ্কার, এই কথা "রেডিও রাশিয়াকে" বলেছেন ফলিত রাজনীতি বিদ্যা ইনস্টিটিউটের ডিরেক্টর ওলগা ক্রীশ্তানোভস্কায়া:

    "যদি বিশ্বে পরিবর্তনের প্রথম উত্স খোঁজা যায়, তবে দেখা যাবে সেখানে রয়েছে বুদ্ধিমত্তা. বিরাট অর্থ রোজগারের জন্যও প্রয়োজন মগজের, যাতে প্রভাবশালী রাজনীতি করা যায়, তার জন্যও প্রয়োজন সেই একই জিনিসের. বুদ্ধিমত্তা মানুষের বেঁচে থাকার মূল ভিত্তি. নিজেদের বুদ্ধিমত্তার জন্যই, বিজ্ঞানীরা খুবই প্রভাবশালী হয়ে থাকেন. তাঁদের আবিষ্কারের জন্যই আমাদের বিশ্ব খুবই গুরুত্বপূর্ণ সব পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যায়. তাই বিজ্ঞানীদের, বিনা শর্তেই মনে করা যেতে পারে, এক অত্যন্ত প্রভাবশালী দল হিসাবে".

    বিখ্যাত খেলোয়াড়দের রেটিং তৈরী করা হয়েছে সেই ভিত্তিতে যে, তাঁরা পশ্চিমে কতখানি পরিচিত, তাঁদের রোজগারের তথ্য নিয়ে ও গোগোল খোঁজে তাঁদের কতবার লোকে খুঁজেছে, তার উপরেই ভিত্তি করে. "বিশ্ব জয়ী" লোকেদের মধ্যে রয়েছেন টেনিস খেলোয়াড় মারিয়া শারাপোভা, আইস হকি খেলোয়াড় আলেকজান্ডার অভেচকিন, ফুটবলার আন্দ্রেই আরশাভিন, বক্সিং এর ফিওদর এমিলিয়ানেঙ্কো ও অন্যান্যরা. খেলাধূলাতে তাঁরা যে ভাবে বিশ্ব জয় করেছেন, আর যা তাঁদের ধনী হতে সাহায্য করেছে, সেটাই ফোর্বস তালিকায় জায়গা পেতে সাহায্য করেছে – এই প্রসঙ্গ আরও বিশদ করে বলেছেন বাজার বিশেষজ্ঞ আন্দ্রেই মালীগিন:

    "কোটি পতি সমস্ত খেলোয়াড় হতে পারে না, এটা সেই খেলার উপরে নির্ভর করে, কোন দলে বা ক্লাবে তিনি খেলেন. আরও অনেক কিছুই এখানে আছে, যেমন, এই খেলা কতটা জনপ্রিয়, টেলিভিশনের পর্দায় লোকে কতখানি তা দেখতে চায়. এখান থেকেই ধনী হওয়ার ক্ষমতা বাড়ে".

    "কিন্তু বড় খেলাতে সাফল্য সব সময়ে পয়সার জন্যই করা হয় না. সমাজের স্বীকৃতির জন্যও বটে. বড় সাফল্যের খেলা – এটা সমাজের জন্য উদাহরণ. অলিম্পিকের খেলা বিগত বছর গুলিতে নাম দেওয়া হয়েছে রক্তপাত হীণ যুদ্ধ বলে, যা বিশ্বের বৃহত্ দেশ গুলিকে তাদের অবস্থান অনুযায়ী কোন রকমের সশস্ত্র যুদ্ধ ছাড়াই তালিকা ভুক্ত করে," – এই কথা বলেছেন বিশেষজ্ঞ মালীগিন.

    সবচেয়ে প্রভাবশালী সংস্কৃতি জগতের দিকপালদের মধ্যে প্রথম স্থানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন আন্না নেত্রেবকো, যিনি গোগোল খোঁজে সবচেয়ে বেশী বার অপেরা গায়িকা হিসাবে উল্লিখিত হয়েছেন, তার পরেই আছেন ইউরি বাশমেত, তিমুর বেকমামবেতভ, ভালেরি গের্গিয়েভ, দিমিত্রি খভোরোস্তোভস্কি.

    আর সবচেয়ে নাম করা ব্যবসায়ীদের তালিকা আমেরিকার ফোর্বস রেটিং এর চেয়ে কমই আলাদা. তাতে রয়েছেন বিখ্যাত রুশ ব্যবসায়ী আলিশের উসমানভ, আলেক্সেই মর্দাশভ, ভিক্তর ভেক্সেলবের্গ, ওলেগ দেরিপাসকা, রমান আব্রামোভিচ ও অন্যান্যরা. ব্যবসায়ীদের – সম্বন্ধে সবই বোধগম্য, তাঁরা এই ধরনের রেটিংয়ে নিয়মিত থাকেন. আর এই যে রেটিংয়ে এত জন বিশ্ব জয়ী, বিজ্ঞানী, খেলোয়াড় ও সংস্কৃতি জগতের প্রতিনিধি, তা আরও একবার প্রমাণ করে দেয় যে, রাশিয়া জীবনের এই সব দিকে নিজেদের জায়গা হারাচ্ছে না.