লিবিয়ার নতুন নেতৃবৃন্দ বিদ্রোহের চূড়ান্ত বিজয়ে ঘোষণা করেছে. সমারোহ হয়েছে বেনগাজি শহরে, যেখানে বিরোধীপক্ষের আন্দোলন শুরু হয়েছিল, এবং তাছাড়া দেশের রাজধানী ত্রিপোলিতে. অন্তর্বর্তী জাতীয় পরিষদের প্রতিনিধিরা গদ্দাফির শাসন থেকে লিবিয়ার মুক্তির কথা ঘোষণা করেছে.উত্খাত নেতাকে কয়েক দিন আগে হত্যা করা হয় তার আপন শহর সির্তে. এদিকে গদ্দাফির ছেলে সইফ আল-ইস্লাম ঘোষণা করেছে যে, বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যাবে এবং পিতাকে হত্যার জন্য প্রতিশোধ নেবে. কিছু কিছু তথ্য অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই সে তার পিতার শাসনের প্রতি বিশ্বস্ত একসারি উপজাতির সমর্থন পেয়েছে. তাছাড়া, উত্খাত নেতা মুয়ম্মর গদ্দাফির উইলের কথা জানানো হয়েছে, যা লেখা হয়েছিল ১৭ই অক্টোবর. নিজের উইলে তিনি ন্যাটো জোট এবং অন্তর্বর্তী জাতীয় পরিষদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন. উইলে বলা হয়েছে, “আমি নিজের পক্ষসমর্থকদের কাছে আবেদন করছি প্রতিরোধ চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ জানিয়ে, এবং লিবিয়ার বিরুদ্ধে আজ হোক, কাল হোক এবং চিরকাল যেকোনো বিদেশী আগ্রাসকের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করার”.