রাশিয়ার অর্থনীতি চলতি বছরের গত নয় মাসে ৩১০০ কোটি ডলারের সরাসরি বিদেশী পুঁজি বিনিয়োগ পেয়েছে. এই সর্বশেষ তথ্য জানিয়েছে দেশের অর্থনৈতিক বিকাশ মন্ত্রক. বিনিয়োগের বেশিটাই হয়েছে খনিজ পদার্থ নিস্কাষন শিল্পে এবং নির্মাণ শিল্পে. তবে জাতীয় সরকার বিনিয়োগের গড়ন বদল করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবে, যাতে ভারী শিল্প ও হাইটেকের পেছনে বিনিয়োগ বাড়ে. জাতীয় সরকার বিদেশী বিনিয়োগকারীদের স্থায়ী ও স্বচ্ছ কর্ম পরিস্থিতিরও গ্যারান্টি দিচ্ছে.

     দীর্ঘকালীন বিনিয়োগ দাবী করে স্থিতিশীলতার এবং ভারসাম্যের. রাশিয়ার জাতীয় সরকার এটা উপলব্ধি করে – বলেছেন ভ্লাদিমির পুতিন বিদেশী বিনিয়োগ পরামর্শ পরিষদের বার্ষিক অধিবেশনে.

       যে কোনো বড় কোনো রাজনৈতিক ঘটনা, বিশেষতঃ লোকসভা এবং রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রাক্কালে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ থাকে, যে কোনদিকে অর্থনীতি মোড় নেবে, দেশের অর্থনৈতিক মতবাদ কেমন হবে. আমি ইতিপূর্বেই এ সম্পর্কে বলেছি, তবে আরও একবার আমাদের শরিকদের উদ্দেশ্যে উল্লেখ করতে চাই, যে অর্থনৈতিক অভিমুখ আমরা বদল করবো না. এবং খুব ভালো করেই আমরা বুঝতে পারি, যে স্থিতিশীলতা এবং পূর্বানুমানযোগ্যতা কতখানি গুরুত্বপূর্ণ.

          বিদেশী বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ও রাশিয়ার অর্থনীতির বিপুল সম্ভাবনা সংখ্যা দিয়েই প্রমাণিত হয়. ২০১১ সালের বিগত নয় মাসে রাশিয়ায় সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে. আর সবমিলিয়ে ২০০৯ সাল থেকে শুরু করে ২০১১ সালের প্রথম নয় মাসে বিদেশী বিনিয়োগের পরিমাণ রাশিয়ায় ১০০০০ কোটি ডলার বৃদ্ধি পেয়েছে. এই যেমন গত কয়েক দিনের উদাহরন. জার্মানীর ‘সিমেন্স’ কর্পোরেশন আগামী তিন বছরে রাশিয়ায় ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করেছে. ক্যানাডার ‘কিনরস গোল্ড’ কোম্পানি তাদের রাশিয়ার বাণিজ্য শাখার পেছনে ৩৫ কোটি ডলার খরচা করার সংকল্প করেছে. পৃথিবীতে এ্যালুমিনিয়ামের পাত্রের বৃহত্তম উত্পাদক বৃটিশ কোম্পানি ‘রেক্সাম বেভারেজ ক্যান হোল্ডিংস’ সাইবেরিয়ার নোভোসিবিরস্ক শহরে নতুন কারখানা খুলতে চায়. আর সুইজারল্যান্ডের ‘নেসলে’, যে বিশ্বের বৃহত্তম খাদ্য ও পানীয় প্রস্তুতকারক, সে ঐ সাইবেরিয়ারই ক্রাসনোইয়ার্স্ক শহরে রাশিয়ায় তাদের দ্বিতীয় কারখানা খুলতে চলেছে. এই প্রকল্পের পেছনে নেসলে ২৩ কোটি ডলার খরচা করেছে.

        তবে সবচেয়ে বড় পরিমাণের বিনিয়োগ হচ্ছে প্রাকৃতিক গ্যাস ও খনিজ তেল শিল্পে. ‘এক্সসন মোবাইলের’ চেয়ারম্যান নিল ডাফফি রেডিও রাশিয়াকে প্রদত্ত ব্যক্তিগত সাক্ষাতকারে ঘোষণা করেছেন, যে তাদের কোম্পানি দীর্ঘকালের জন্য রাশিয়ার বাজারে এসেছে, এবং শুধু অর্থই নয়, তারা নতুন নতুন প্রযুক্তিও বিনিয়োগ করতে প্রস্তুত.                 ‘এক্সসন মোবাইল’ কোম্পানি অনেকগুলি প্রকল্পে পুঁজি বিনিয়োগ করেছে. আমরা সর্বদাই অন্যান্য প্রতিষ্ঠিত তেলের কোম্পানিগুলির সাথে যৌথ লাভজনক প্রকল্পের সন্ধান করি. সেই কারনেই আমরা ‘রসনেফতের’ সাথে সম্পর্কের বিকাশ ঘটাচ্ছি. আমরা যৌথভাবে কারা সাগরে ও কৃষ্ণসাগরে গভীর জলের তলা থেকে খনিজ তেল নিষ্কাসনের প্রকল্প নিয়ে কাজ করছি. ‘এক্সসন মোবাইল’ তার বিশ্বব্যাপী অর্জন করা অভিজ্ঞতা ‘রসনেফতের’ সাথে ভাগ করে নিতে প্রস্তুত.

     রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ও মন্ত্রীসভার বেশ কয়েকটি উদ্যোগ বাড়তি বিদেশী পুঁজি বিনিয়োগে মদত দিয়েছে. সরাসরি বিনিয়োগের রুশী তহবিল সক্রিয়ভাবে বিকশিত হচ্ছে. শুধুমাত্র গত সপ্তাহেই ঐ তহবিল চীনের বিনিয়োগ কর্পোরেশনের সাথে যুগ্ম তহবিল গঠণ করে ৩০০-৪০০ কোটি ডলার ঐ নতুন তহবিলে বিনিয়োগ করার সম্মতিপত্র স্বাক্ষর করেছে. তাছাড়া রাশিয়া, বেলোরুশ ও কাজাকস্তানের মধ্যে অভিন্ন কাস্টমস গঠণও দেশের ব্যবসায়িক পরিবেশকে উদ্বুদ্ধ করেছে.