রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া তিমাশেনকোর বিরূদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারী করায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন. আজ রুশূ সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানিয়েছেন. – আমি আদালতের কি অভিযোগ, তা জানিনা, জানিনা সেখানে সঠিক কি লেখা হয়েছে, তবে সংবাদ মাধ্যমের সূত্র ধরে বুঝতে পারলাম, যে অভিযোগ রাশিয়ার সাথে প্রাকৃতিক গ্যাসের চুক্তি স্বাক্ষর করা নিয়ে. তিমাশেনকো নিজে কোনো চুক্তি স্বাক্ষর করেননি. পুতিন উল্লেখ করেছেন, যে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল দুটি বেসরকারি সংস্থা – গ্যাসপ্রোম ও নাফতোগ্যাস.

-    আমি সত্যি কথা বলতে কি ঠিক বুঝতে পারছি না, কেন তাকে ৭ বছরের কারাদন্ড দেওয়া হল – বলেছেন পুতিন. তিমাশেনকো আমার বন্ধুও নয়, আত্মীয়ও নয়, এমনকি রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীও নয়. পুতিন ব্যাখ্যা করে বলেন, যে তিমাশেনকো বরাবর পাশ্চাত্যের অনুগামী ছিল. কিন্তু যদি রাশিয়া ও ইউক্রেন সোভিয়েতোত্তর ভূখন্ডে তাদের কার্যকলাপের সমন্বয় ঘটাতো, তাহলে উভয় দেশের পক্ষেই সেটা হতো লাভজনক.