0ভারতীয় বিশেষ বিভাগের একমাস সময় লেগেছে সেই ব্যক্তিকে খুঁজে বার করতে ও গ্রেপ্তার করতে, যার কাছ থেকে দিল্লি হাইকোর্ট ভবনের কাছে বিস্ফোরণ আয়োজন সম্বন্ধে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যেতে পারে. এ সম্বন্ধে শুক্রবার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা এজেন্সির প্রতিনিধি. তিনি বলেন যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কাশ্মীরের এক মেডিকেল ছাত্র ওয়াসিম আহমেদ-কে, যে প্রতিবেশী বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় পড়ছে. কিছু কিছু তথ্য অনুযায়ী, ছাত্রটিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কয়েক দিন আগে ভারত-বাংলাদেশ সীমানার কাছে. জেরার সময় ওয়াসিম আহমেদ ইতিমধ্যে পুলিশকে জানিয়েছে রাডিক্যাল “হেজবোল্লা” দলের সক্রিয় কর্মী জুনাইদ আক্রমের অনুমিত অবস্থান-স্থল সম্বন্ধে. তাকেই ৭ই সেপ্টেম্বরের সন্ত্রসের একজন আয়োজক বলে মনে করা হচ্ছে. ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা এজেন্সির প্রতিনিধি বলেন যে, তদন্ত এ বিস্ফোরণের সাথে রাডিক্যাল ইস্লামপন্থী “হরকত-উল-জিহাদী” দলের যুক্ত থাকার ধারণা ত্যাগ করেছে. এ সন্ত্রাস ঘটেছিল ভারতের রাজধানীতে সেপ্টেম্বরের গোড়ায়, যার ফলে ১৫ জন নিহত হয়েছিল এবং ৭০ জনের উপর আহত হয়েছিল.