সিরিয়ার সর্বোচ্চ মুফতি আহমদ বদ্র্ এদ-দিন হাসুনের পুত্র – সারিয়া হাসুনকে রবিবার অজানা ব্যক্তিরা গুলি করে হত্যা করে দেশের উত্তর-পশ্চিমে ইডলিব প্রদেশে এবলা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনের কাছে. এ সম্বন্ধে সোমবার “আল-আরাবিয়া” টেলি-চ্যানেল জানিয়েছে সিরিয়ার “সানা” সংবাদ সংস্থার উদ্ধৃতি দিয়ে. সংবাদ সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, সারিয়া হাসুন নিজের অধ্যাপকের সাথে কথা বলছিল, এমন সময়ে হঠাত্ সশস্ত্র জঙ্গীরা তাদের আক্রমণ করে. এ আক্রমণে অধ্যাপকও নিহত হন. নিহতের এক আত্মীয়ের কথায়, হাসুনকে দুটি গুলি করা হয় – বুকে এবং পেটে, যার ফলে পরে ইডলিব শহরের হাসপাতালে সে মারা যায়. সংবাদ এজেন্সি জানাচ্ছে, সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের শাসনের সশস্ত্র বিরুদ্ধবাদীরা বিগত কয়েক সপ্তাহে রাষ্ট্রপতির পক্ষসমর্থকদের কয়েকবার হত্যার প্রচেষ্টা করেছে. মুফতি আহমদ বদ্র্ এদ-দিন হাসুনকে আসদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী বলে মনে করা হয়. সিরিয়ায় সরকারবিরোধী প্রতিবাদ আন্দোলন শুরু হয় মার্চ মাসের মাঝামাঝি দেশের দক্ষিণে ডেরাআ শহরে, আর তারপর তা অন্যান্য অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে. বিরোধীপক্ষ রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের পদত্যাগ এবং রাজনৈতিক রূপান্তরের দাবি করছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোসঙ্ঘ আসদকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে.