লিবিয়ায় চরমপন্থীদের সংখ্যা অতি সামান্য, এবং তারা দেশের ভবিষ্যতে কোনো ভূমিকা পালন করবে না. রবিবার মরক্কোর “মেডি আন টিভি”টেলি-চ্যানেলে বক্তৃতা দিয়ে এ সম্বন্ধে বলেছেন লিবিয়ার অন্তর্বর্তী জাতীয় পরিষদের প্রধান মুস্তাফা আব্দেল জলিল. তাঁর কথায়, লিবিয়ায় সকলের জন্য এক হল নরমপন্থী ইস্লাম. তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, দেশে আসন্ন পরিবর্তন, হবে লিবিয়ার জনগণের প্রতি বাধ্যবাধকতার পুরণ, পাশ্চাত্যের প্রতি নয়, উল্লেখ করেছে “ইতার-তাস” সংবাদ সংস্থা. সেই সঙ্গে আব্দেল জলিল স্বীকার করেন যে, লিবিয়ায় মুয়ম্মর গদ্দাফির আমলে দেখা দেওয়া ও বর্তমানে বিদ্যমান উপজাতিগুলির মাঝে এবং আঞ্চলিক মতভেদ অতিক্রম করা কঠিন হবে.