0আত্মঘাতী সন্ত্রাসবাদী, যে আফগানিস্তানের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বুরখানুদ্দিন রব্বানিকে হত্যা করেছে, সে পাকিস্তানের লোক. এই বিষয়ে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই এর তথ্য সম্প্রচার দপ্তর থেকে এক ঘোষণাতে. এই দলিলের বয়ান থেকে বোঝা গিয়েছে যে, রব্বানি হত্যার তদন্তে নিয়োজিত পরিষদ, যা কারজাইয়ের নির্দেশে তৈরী করা হয়েছে, তাদের কাছে এক ব্যক্তির কাছ থেকে পাওয়া প্রমাণ ও স্বীকারোক্তি রয়েছে এই অপরাধ সংঘটনের সম্বন্ধে. এই গুলি থেকে প্রমাণিত হয়েছে যে, প্রফেসর রব্বানিকে হত্যার পরিকল্পনা কোয়েটা শহরে তৈরী করা হয়েছিল ও যে লোকটি এই কাজ করেছে, সে একজন পাকিস্তানী. আগে জানানো হয়েছিল যে, আফগানিস্তান ইতিমধ্যেই পাকিস্তান থেকে বুরখানুদ্দিন রব্বানীর হত্যার সঙ্গে জড়িত লোকেদের বহিস্কার দাবী করেছে. রাষ্ট্রপতির তথ্য দপ্তর থেকে বলা হয়েছে তাদের ঠিকানা ও টেলিফোন নম্বর পাকিস্তানের পক্ষকে দেওয়া হয়েছে. রব্বানি ২০ শে সেপ্টেম্বর এক আত্মঘাতী লোকের হাতে মারা পড়েছেন, যে তালিব পক্ষের হয়ে শান্তি আলোচনার নামে তার কাছে উপস্থিত হয়েছিল. সে তার মাথার পাগড়ীতে করে বিস্ফোরক নিয়ে এসেছিল. ইসলামাবাদ এই সূত্রে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বুরখানুদ্দিন রব্বানীর হত্যার সঙ্গে পাকিস্তানের বিশেষ বাহিনী, আন্তর্বিভাগীয় গুপ্তচর সংস্থার যোগাযোগ রয়েছে বলে আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বিশ্বাসকে অস্বীকার করেছে ও মনে করে যে, তার কোন ভিত্তি নেই. রবিবারে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে প্রকাশিত এক ঘোষণাতে এই কথা বলা হয়েছে.