রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি মনে করেন যে, নির্বাচনে ভোটদানের ফলাফল পূর্বনির্ধারিত হতে পারে না, কারণ যে কোনো রাজনীতিজ্ঞই তাতে হেরে যেতে পারেন. রাশিয়ার প্রধান প্রধান টেলি-চ্যানেলের পরিচালকদের সাথে সাক্ষাতে রাষ্ট্রপতি বলেন, “নির্বাচন করে থাকেন জনসাধারণ, আর এটা ফাঁকা বুলি নয়, এটা সত্যিই তাই”. তাঁর কথায়, যে কোনো রাজনীতিজ্ঞ নির্বাচনে হেরে যেতে পারেন. মেদভেদেভ উল্লেখ করেন যে, রাশিয়ার ইতিহাসে এবং অন্যান্য দেশের ইতিহাসে একাধিকবার এমন ঘটনা ঘটেছে. তিনি বলেন, “কেউই এ থেকে সুরক্ষিত নন. লোকেরাই ঠিক করুক, কার পক্ষে ভোট দেবে, কার মর্যাদা বেশি”. মেদভেদেভ বলেন, “শুধু আমাদের নাগরিকরাই কোনো ব্যক্তি বা রাজনৈতিক শক্তির পক্ষে ভোট দিয়ে অথবা প্রত্যাখান করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে. এটাই হল গণতন্ত্রের নিয়ম”. রাশিয়ায় পার্লামেন্টারী নির্বাচন হবে ৪ঠা ডিসেম্বর. রাষ্ট্রপতির নির্বাচন হবে ২০১২ সালের মার্চে. রাষ্ট্রপতি মেদভেদেভের সম্পূর্ণ ইন্টারভিউ রাশিয়ার কেন্দ্রীয় টেলি-চ্যানেলগুলিতে দেখানো হবে শুক্রবার মস্কো সময় অনুযায়ী রাত সাড়ে আটটায়.