কোসোভোর উত্তরাঞ্চলে সার্বিয়ান মিছিলকারীদের বিরুদ্ধে ন্যাটো জোটের শান্তি সৈনিকদের রবারের গুলি ব্যবহারকে রাশিয়া অ-যথাযথ প্রতিক্রিয়া বলে মনে করে. ন্যাটো জোটের প্রতিনিধিরা এর প্রাক্কালে এ কথা সমর্থন করেছেন যে, তাঁদের সৈনিকরা সার্বিয়ান মিছিলকারীদের ছত্রভঙ্গ করার জন্য অস্ত্র ব্যবহার করেছে. সৈনিকরা রবারের গুলি ব্যবহার করে, যখন মিছিলকারীরা তাদের উপর হাত-বোমা ছুঁড়তে শুরু করে. এ ঘটনাটি ঘটেছে একতরফাভাবে স্বাধীনতা ঘোষণা করা কোসোভো ও সার্বিয়া প্রজাতন্ত্রের মাঝে প্রশাসনিক সীমানা অঞ্চলে. ন্যাটো জোটে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি দমিত্রি রগোজিন বলেন যে, এ অঞ্চলে হিংসা বাড়ছে, “যার লক্ষ্য হল – কোসোভোয় আলবেনীয় জাতিদাম্ভিকতার চাপে সার্বিয়ান প্রতিরোধের শেষ উত্সগুলিকে উচ্ছেদ করা”. রগোজিন “ইন্টারফাক্স” সংবাদ সংস্থাকে বলেন, “ন্যাটো জোট কোনো ভাবেই বিশ্লেষণ করতে চায় না কি ঘটেছে, কারণ এমন বিশ্লেষণের ফল তাদের জন্য প্রীতিকর হবে না”. রগোজিনের কথায়, এ অঞ্চলে ন্যাটো জোটের বাহিনী “প্রিশটিন কর্তৃপক্ষের” পক্ষে যোগ দিয়েছে. রাশিয়ার প্রতিনিধি ন্যাটো জোটের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন তথাকথিত "কোসোভোর প্রধানমন্ত্রী" হাশিম তাছির প্ররোচনায় অংশগ্রহণ করার. রগোজিন বলেন, প্রাক্তন মুখ্য আলবেনীয় জঙ্গী তাছি, যাকে সন্দেহ করা হচ্ছে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য বন্দী সার্বিয়ানদের দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কেটে বিক্রি করার, এ অঞ্চলে পরিস্থিতি তীব্র করার চেষ্টা করছে.