সশস্ত্র সংঘর্ষ, সড়কে বিস্ফোরণ এবং অন্যান্য হিংসাত্মক ঘটনার সংখ্যা আফগানিস্তানে ২০১১ সালের সূচনা থেকে ২০১০ সালের তুলনায় ৩৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে. জাতিসংঘ প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী চলতি বছরে দুহাজার একশোরও বেশি হিংসাত্মক ঘটনা ঘটেছে. সশস্ত্র সংঘর্ষ এবং নিজে বানানো বিস্ফোরক যন্ত্র আগের মতোই অধিকাংশ ঘটনার পেছনে. নিজের রিপোর্টে জাতিসংঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন জানিয়েছেন, যে হিংসাত্মক ঘটনার সংখ্যার দিক থেকে আফগানিস্তানের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল, বিশেষতঃ কান্দাহার শহর সবার থেকে এগিয়ে. জাতিসংঘের রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১১ সালে জটিল সন্ত্রাসবাদী হামলার সংখ্যা ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে, যেখানে একসঙ্গে কয়েকজন উগ্রপন্থী-আত্মঘাতী অংশগ্রহণ করে. এ্যাসোশিয়েটেড প্রেস সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, যে সংখ্যাতত্বের বিচারে গত দশবছর ধরে যে যুদ্ধ চলছে, তার কোনো প্রশমন তো হচ্ছেই না, বরং যুদ্ধের তীব্রতা বৃদ্ধি পাচ্ছে.