গত ১১ই মার্চে জাপানে ভূমিকম্প ও ত্সুনামিতে নিহতের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে এবং ১৫৮০০র বেশিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে. জাপানের জাতীয় পুলিশ এজেন্সি এ খবর দিয়েছে. এজেন্সি পরিবেশিত তথ্য অনুযায়ী, নিহতের তালিকায় ১৫ হাজার ৮০৫ জনের নাম. নিখোঁজ ব্যক্তিদের সংখ্যা কমে এখন ৪ হাজার ৪০ জনে দাঁড়িয়েছে. আহতদের সংখ্যা ৫ হাজার ৯২৭ জন. গত ১১ই মার্চ জাপানের হোনসু দ্বীপের উত্তর-পূর্ব উপকূলে ১৩০ কি.মি. দূরত্বে ৮,৯ মাত্রার ধ্বংসাত্বক ভূমিকম্প এবং তার ফলে ভয়ঙ্কর ত্সুনামি হয়. মিয়াগি পৌরসভা, যেখানে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে, সেখানে স্বেচ্ছাসেবকরা মহাসাগরের পাড়ে নিহতদের স্মৃতিতে ঝড়ে উত্পাটিত হওয়া বিশাল পরিমাণ গাছ দিয়ে স্মৃতিস্তম্ভ স্থাপণ করেছে. হাজার হাজার মানুষ নিহত ও নিখোঁজ হওয়া ছাড়াও দূর্যোগ সত্যিকারের পারমানরিক দুর্ঘটনা ঘটায়. একসারি পারমানবিক বিদ্যুতকেন্দ্রে উত্পাদন বন্ধ হয়ে যায়. ‘ফুকুসিমা-১’ পারমানবিক বিদ্যুতকেন্দ্রে কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে, যে কারনে স্থানীয় এলাকায় ও সমুদ্রের জলে পারমানবিক সংক্রামণের হার বিপুলহারে বৃদ্ধি পায়.