জি-২০ গোষ্ঠীর সদস্য দেশগুলির অর্থমন্ত্রীরা এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্কের প্রধানরা ওয়াশিংটনে তাদের বৈঠকের শেষে শেয়ার বাজারে এবং ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্রে স্থিতিশীলতা বজায় রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন. উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলি একসাথে সমন্বয় করে বিশ্ব অর্থনীতির প্রতি নতুন চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করার সংকল্প নিয়েছে. বৈঠকে মুখ্য আলোচ্য বিষয় ছিল ইউরোপের ঋণসংকট এবং বিশ্ব অর্থনীতির উপর তার পরিণাম. শেয়ার বাজারে গতকাল গতবছরের গ্রীস্মকালের পর থেকে সব সূচক সবচেয়ে নীচে নেমে এসেছে, ইউরোপীয় ব্যাঙ্কগুলির ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে সূদের হারও বাড়ছে. বিশ্ব অর্থনীতির উন্নয়নের হার হ্রাস পাচ্ছে. ইউরোপীয় সংঘ, আমেরিকা ও অন্যান্য দেশ এর আগের বৈঠকের পরে অর্থনীতির অবস্থা উন্নয়নের জন্য একসারি ব্যবস্থা বাস্তবায়িত করেছে. বিশ্বব্যাঙ্কের প্রধান রবার্ট জেলিক মনে করেন, যে উন্নত দুনিয়ার আর্থিক সংকট উন্নয়নশীল দুনিয়ার জন্য বিপজ্জনক হতে পারে. চীন, ভারত এবং দ্বিতীয় সারির অন্যান্য দেশগুলির উচিত বিদেশের প্রভাবের  বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধ তৈরী করা ঘরোয়া চাহিদা বাড়িয়ে, বাজেটের বন্ধন শক্ত করা এবং পারস্পরিকভাবে নিজেদের কার্যকলাপের সমন্বয় ঘটানো.