থাইল্যান্ড ও কম্বোজ (কাম্বোডিয়া) তাদের সীমানার বিতর্কমূলক অঞ্চলে সৈন্যবাহিনী মোতায়েন সম্পর্কে সমঝোতায় এসেছে. এ সিদ্ধান্ত গ্রহণেই শেষ হয়েছে প্নমপেনে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইইনগ্লাক চিনাওয়াত এবং কম্বেজের প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের সাক্ষাত্. কথা হচ্ছে প্রিয়া বিহার মন্দিরের চারপাশে ৪.৬ বর্গ কিলোমিটার এলাকার. থাইল্যান্ড একাদশ শতাব্দীতে নির্মিত এ মন্দিরের চারপাশের এলাকার মালিকানার দাবি জানিয়েছে, যদিও ১৯৬২ সালে আন্তর্জাতিক আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এর মালিকানা কম্বোজের পক্ষে সূত্রবদ্ধ করা হয়েছিল. সাক্ষাতের পরে হুন সেন বলেন যে, এখন সমস্ত বিরোধ শান্তিপূর্ণভাবে মীমাংসার সুযোগ দেখা দিয়েছে, সেই সঙ্গে প্রিয়া বিহার মন্দিরের চারপাশে সীমান্ত সঙ্ঘর্ষ মীমাংসারও. পক্ষদ্বয় তাছাড়া সম্পর্কের স্বাভাবিকীকরণ এবং সহযোগিতা আরও বিকাশের পরিপ্রেক্ষিত আলোচনা করেছেন. চিনাওয়াত থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর পদে নির্বাচিত হন আগস্টের গোড়ায়. প্নমপেন হল তাঁর “আসিয়ান” দেশগুলি সফরের তৃতীয় জায়গা. এর আগে তিনি সফর করেন ব্রুনেই এবং ইন্দোনেশিয়া.