সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার নিজস্ব রেটিং এজেন্সির আবির্ভাব হতে পারে. এই প্রসঙ্গে ইর্কুতস্কে বৈকাল আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলণের আওতায় উক্ত সংস্থার কার্যকরী কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়েছে.

           ২০১০ সালে দুশানবেতে সাংহাই সহযোগীতা সংস্থার সদস্য দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানদের বৈঠকে প্রথমবার কার্যকরী কমিটি এরকম রেটিং এজেন্সি স্থাপণ করার প্রস্তাব দেয়. প্রথমতঃ, সংস্থার ভেতরেই অর্থনৈতিক সহযোগীতা দৃঢ়তর হচ্ছে. দ্বিতীয়তঃ, বিশ্বব্যাপী আর্থিক সংকটও এক্ষেত্রে কম ভুমিকা পালন করেনি. সংকট অর্থনৈতিক বিশ্লেষণের নতুন নতুন দাবী পেশ করেছে.

           সংকটের প্রবল স্রোতে রেটিং এজেন্সিগুলি শেয়ার বাজারে মুখ্য তারকায় পরিণত হয়েছে, তারাই শেয়ার বাজারের পরিস্থিতি নির্দ্ধারণ করে. যদিও মনে হতে পারে, যে তাদের ভুমিকা হওয়া উচিত ছিল নির্বাক প্রত্যক্ষদর্শীর, যারা নিস্বার্থে পরিস্থিতি যাচাই করে. কিন্তু বাস্তবে তাদের মূল্যায়ণ এবং পূর্বাভাসের ওপর বেসরকারি ও সরকারি কোম্পানীগুলির বন্ডের দামের ওঠাপড়া নির্ভর করে. আর তার মানে হল, একটা গোটা দেশের ভাগ্য তাদের ওপর নির্ভর করে. সবার আগে ‘ম্যুডি’স’, ‘স্ট্যানডার্ড এ্যান্ড পুওর’ এবং ‘ফিচ’ – এই ত্রয়ীর কথা বলতে হয়. বহু বিশেষজ্ঞই উল্লেখ করেছেন, যে উপরোক্ত ত্রয়ী তাদের একনায়কত্বের দৌলতে যতখানি না অর্থনৈতিক, তার চেয়ে বেশি রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধন করছে. ঐ তিনটি কোম্পানীরই সদর দপ্তর আমেরিকায় অবস্থিত – এই ব্যাপারটাও সমালোচনার উদ্রেক করে. এবং স্বাভাবিকভাবেই তাদের মূল্যায়ণে লোকে বিশ্বাস করে না. তাদের স্বার্থপরতার উজ্জ্বল উদাহরণ হল – মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্রের যে ব্যাঙ্কগুলি হাউস-লোন দেয়, তাদের অস্বাভাবিক রকম উঁচু রেটিং. এই কারনে বিনিয়োগকারীরা গুলিয়ে ফেলছে এবং আবার নতুন আর্থিক সংকটের উদ্ভব হচ্ছে. – ‘মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্র থেকে, অথবা কখনো কখনো মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্রের চোখ দিয়ে বিশ্ব অর্থনীতি পরিবেক্ষণ করা আর ফলপ্রসূ নয়, এবং বহুমেরু সম্বলিত অর্থনীতির পক্ষে যোগ্যও নয়’ – রেডিও রাশিয়াকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে এ কথা বলছেন দূর-প্রাচ্য ইনস্টিটিউটের উপাধ্যক্ষ, অধ্যাপক সের্গেই লুজিয়ানিন. Голос

       বৈকাল সম্মেলণে ইর্কুতস্কে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা প্রস্তাবিত নিজস্ব রেটিং এজেন্সি স্থাপণের ধারণা রীতিমতো যুক্তিযুক্ত. সর্বদাই সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কার্যকরী কমিটির সমালোচনা করা হতো, যে সম্মিলিত অর্থনৈতিক নীতি নির্দ্ধারণে তারা ব্যর্থ. এই মুহুর্তে চীনের প্রকল্প আছে, আরও আছে দ্বিপাক্ষিক ও ত্রিপাক্ষিক প্রকল্প. যদি বিশেষজ্ঞেরা নতুন রেটিং এজেন্সির পত্তন করার কাজ শুরু করেন, তবে সেটা হবে এক নতুন জিনিষ. এর দৌলতে শুধু রেটিং নির্ণয় করা নয়, সারা বিশ্ব থেকে, আন্তর্জাতিক কোম্পানীগুলি থেকে প্রচুর পরিমানে বিনিয়োগ পাওয়া যাবে.

      আমেরিকার রেটিং নির্ণায়ক কোম্পানীগুলির কোনো বিকল্প সৃস্টি করার ধারণা বাতাসে ভাসছে. গত গ্রীস্মকালে ইউরোপীয় কমিটি ঘোষণা করেছে, যে তারা এক সর্বইউরোপীয় রেটিং কোম্পানী প্রতিষ্ঠার কাজ ত্বরাণ্বিত করবে. তার মুখ্য বৈসাদৃশ্য হবে – ইউরোপের নিজস্ব মডেলকে মাথায় রাখা. ব্রিকসের অন্তর্ভুক্ত দেশগুলিও নিজস্ব অর্থনৈতিক রেটিং এজেন্সি প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে আগ্রহ দেখাচ্ছে. ‘ডাগুন’ নামক চীনা রেটিং এজেন্সি রাশিয়ার সহকর্মীদের সাথে একত্রে ব্রাজিল, ভারত, রাশিয়া, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে কাজ করতে চায়. সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার এই নতুন উদ্যোগ যুক্তিযুক্ত. সের্গেই লুজিয়ানিনের মতে, নিজস্ব রেটিং এজেন্সি সাংহাই সহযোগীতা সংস্থার অন্তর্ভুক্ত দেশগুলিতে সম্ভাবনাময় প্রকল্পের খাতে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণ করতে পারে.