ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির সরকার সিরিয়ার তৈল ক্ষেত্রে ইউরোপীয় কোম্পানির অর্থ বিনিয়োগে নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন সম্পর্কে প্রাথমিকভাবে সম্মত হয়েছে. “রয়টার” সংবাদ সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, কথা হচ্ছে তেলের অনুসন্ধান, নিষ্কাশন ও পরিশোধনের ক্ষেত্রে নতুন নতুন বিনিয়োগ নিষেধ করার. নিষেধাজ্ঞা প্রর্তনের ক্ষেত্রে ইউরোপীয় কোম্পানিগুলি সিরিয়ার জ্বালানী কোম্পানিগুলির সাথে যৌথ-প্রতিষ্ঠান গঠন করতে পারবে না, তাদের ঋণ দিতে পারবে না. আর তাছাড়া সিরিয়ার প্রতিষ্ঠানগুলিতে নতুন শেয়ার কিনতে ও নিজের অংশ বাডাতে পারবে না. ইউরোসঙ্ঘের লক্ষ্য – দীর্ঘকালীন পরিপ্রেক্ষিতে সিরিয়ার রাষ্ট্রপতির সরকারকে অর্থ নিয়োগের উত্স থেকে বঞ্চিত করা, উল্লেখ করা হয়েছে খবরে. আশা করা হচ্ছে যে, ডামাস্কাসের বিরুদ্ধে ইউরোসঙ্ঘের বাধানিষেধের পরবর্তী প্যাকেট চূড়ান্তভাবে অনুমোদিত হবে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে এবং পরবর্তী সপ্তাহে তা বলবত্ হবে.