লিবিয়া ইস্লামিক চরমপন্থীদের হাতে চলে যেতে পারে, যদি সেখানে নিকট ভবিষ্যতে স্থিতিশীল সরকার গঠিত না হয়. এ সম্বন্ধে বলেছেন ন্যাটো জোটের প্রধান সচিব অ্যান্ডের্স ফগ রাসমুসেন বৃটেনের “ডেইলি টেলিগ্রাফ” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে. এ সতর্ক-বার্তা ধ্বনিত হয় সেই সময়্, যখন লিবিয়ার অন্তর্বর্তী জাতীয় পরিষদের প্রধান মুস্তাফা আব্দেল জলিল ত্রিপোলিতে প্রথম বক্তৃতা দেন. তিনি ঘোষণা করেন যে, লিবিয়ার নতুন আইন সংবিধির ভিত্তিতে থাকবে ইস্লামিক আইনবিধি – শারিয়াতের মূলনীতি. ইতিমধ্যে এমন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে যে, লিবিয়ার নতুন কর্তৃপক্ষকে একসারি ভিন্ন ভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে. এর মধ্যে আছে – রাডিক্যাল ইস্লামিক ধরণের সশস্ত্র দলগুলির ভবিষ্যত্ ভূমিকা নিরূপণ, যা লিবিয়ার বিপ্লবে নির্দিষ্ট ভূমিকা পালন করেছে.