ভারতের পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে এ সন্দেহে যে, তারা ইস্লামিক দল “হরকত উল-জিহাদ আল ইসলামীর” তরফ থেকে খবর পাঠিয়েছিল, যে দল বুধবার দিল্লি হাইকোর্টের ভবনের কাছে সন্ত্রাসের জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করেছে, পুলিশের উত্স উদ্ধৃত করে জানিয়েছে “আই.এ.এন.এস” সংবাদ এজেন্সি. প্রচার মাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, ইব্রাহিম ও আসিক হুসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে বৃহস্পতিবার রাতে জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের কিশ্টওয়ার শহরে – সন্দেহ করা হচ্ছে যে, তারাই নয়া-দিল্লিতে বিস্ফোরণে “হরকত উল-জিহাদ আল-ইসলামী” দলের জড়িত থাকার খবর পাঠিয়েছিল. তদন্তের গতিতে ইতিমধ্যে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেই সঙ্গে কিশ্টওয়ার শহরের ইন্টারনেট-কাফের মালিককেও, যেখান থেকে খবর পাঠানো হয়েছিল. পাকিস্তানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা “হরকত উল-জিহাদ আল-ইসলামী” দলকে ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের ভূভাগে সন্ত্রাস আয়োজনে সন্দেহ করা হচ্ছে. তার নেতৃবৃন্দের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে “আল-কাইদার” আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী জালের সাথে. ভারতের পুলিশ তাছাড়া দুজন পুরুষের ফোটো-রোবোট প্রচার করেছে ( একজনের বয়স প্রায় ২৬ বছর এবং অন্য জনের – প্রায় ৫০ বছর) যাদের সন্দেহ করা হচ্ছে য়ে তারা নয়া-দিল্লিতে হাইকোর্টের দরজার কাছে বিস্ফোরক বস্তু ভরা বাক্স রেখে গিয়েছিল. কর্তৃপক্ষ ভারতের রাজধানীর সমস্ত বাসিন্দার কাছে এ ব্যক্তিদের অনুসন্ধানে সাহায্য করার অনুরোধ জানিয়েছেন.