ইরানের সাথে “ছয়টি মধ্যস্থ দেশের” আলাপ-আলোচনা তাড়াতাড়ি পুনরারম্ভের জন্য রাশিয়া সম্ভাব্য সবকিছুই করছে. এ সম্বন্ধে বলেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন. ইরান বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে বক্তৃতা দিয়ে তিনি উল্লেখ করেন যে, তেহেরানের পারমাণবিক সমস্যা মীমাংসায় রাজনৈতিক-কূটনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গীর পক্ষে মস্কো মত প্রকাশ করছে. চুরকিন মনে করেন, ইরানের কর্মসূচির শান্তিপূর্ণ চরিত্র সম্পর্কে যে কোনো সন্দেহ দূর করা উচিত. এর পরে এ দেশ পারমাণবিক অস্ত্র প্রসার নিরোধের চুক্তিবদ্ধ অ-পারমাণবিক সদস্য দেশের সমস্ত অধিকার ব্যবহার করতে পারবে, বলেন রাশিয়ার কূটনীতিজ্ঞ. বিগত কয়েক সপ্তাহে রাষ্ট্রসঙ্ঘ তথাকথিত “লাভরোভের পরিকল্পনা” সক্রিয়ভাবে আলোচনা করছে, যা অনুযায়ী “ছয়টি মধ্যস্থ দেশ” এবং ইরান আলাপ-আলোচনায় এগিয়ে যেতে পারে. আলাপ-আলোচনার শেষ রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয়েছিল জানুয়ারী মাসে ইস্তাম্বুলে এবং তা নিষ্ফলভাবে শেষ হয়.