তাজিকিস্তান ও ইরানের দ্বারা মিলিতভাবে নির্মিত সাঙ্গতুদিন জলবিদ্যুত্ কেন্দ্রের প্রথম অংশ সোমবার চালু হয়েছে. দু দেশের রাষ্ট্রপতি এমোমালি রাহমোন এবং মাহমুদ আহমাদিনেজাদ তা চালু করার প্রতীকী বোতাম টেপেন. ভাখ্শ নদীর উপর নির্মীয়মান সাঙ্গতুদিন জলবিদ্যুত্ কেন্দ্রের ক্ষমতা ২২০ মেগাওয়াট, প্রকল্পের জন্য খরচ – প্রায় ২২ কোটি ডলার, যার মধ্যে ১৮ কোটি ডলার নিয়োগ করবে ইরান, আর ৪ কোটি ডলার – তাজিকিস্তান. দু দেশের আন্তঃসরকারী চুক্তি অনুযায়ী, জলবিদ্যুত্ কেন্দ্র চালু হওয়ার পরে ১২.৫ বছর ধরে উত্পাদিত বিদ্যুত্শক্তি বিক্রির পুরো অর্থ পাবে ইরান, আর তার পরে কেন্দ্রটি সম্পূর্ণভাবে তাজিকিস্তানের সম্পত্তি হয়ে উঠবে. রবিবার আহমাদিনেজাদ ও রাহমোনের মাঝে সরকারী আলাপ-আলোচনার সময় ইরানের রাষ্ট্রপতি বলেন যে, এ জলবিদ্যুত্ কেন্দ্রটি চালু হওয়ার পরে ইরানী পক্ষ উত্তর তাজিকিস্তানে জেরাফশান নদীতে জলবিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণ শুরু করতে প্রস্তুত. আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে দু দেশের নেতারা একসারি দলিল স্বাক্ষর করেছেন – যৌথ ঘোষণাপত্র, বিদ্যুত্ মন্ত্রণালয়গুলির মাঝে সহযোগিতা সংক্রান্ত স্মারকলিপি এবং দুশানবে-খুজান্ড মোটর-পথে ইস্তিকলোল টানেলের নির্মাণ শেষ করা সম্পর্কে অতিরিক্ত আন্তঃসরকারী স্মারকলিপি.