পাকিস্তানে মুষলধারে বৃষ্টি এবং তার ফলে দেখা দেওয়া বন্যায় বিগত সপ্তাহে মারা যাওয়া লোকেদের সংখ্যা ৯০-এর কাছাকাছি, সরকারী উত্সকে উদ্ধৃত করে সোমবার জানিয়েছে “ডন নিউজ” টেলি-চ্যানেল. প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের বিরুদ্ধে সংগ্রাম সংক্রান্ত জাতীয় বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, বৃষ্টি এবং বন্যার ফলে আগস্টের শেষ থেকে অন্ততপক্ষে ৮৮ জন মারা গেছে. সবচেয়ে বেশি লোক মারা গেছে দক্ষিণের সিন্ধ প্রদেশে – প্রায় ৫০ জন, দক্ষিণ-পশ্চিমের বেলুচিস্তান প্রদেশেও কিছু লোক মারা গেছে. হরিপুর, লার্কানা, নওয়াশাহ, ঘোটকি এবং অন্যান্য জেলায় জলে ডুবে গেছে গ্রাম এবং বোনা শস্যের ক্ষেত, জোয়ারের ঢেউয়ে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে সেতু এবং রাস্তা ডুবে গেছে. তিন সপ্তাহের উপর অবিরাম বৃষ্টি ২ লক্ষেরও বেশি লোককে গৃহহারা করেছে, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের এলাকায় এখন রয়েছে ৭০ লক্ষেরও বেশি লোক. বৃষ্টির দরুণ সিন্ধু নদী এবং তার শাখানদীগুলিতে জলের মান তীব্রভাবে বেড়েছে. পাকিস্তানে আশঙ্কা করা হচ্ছে গত বছরের বিপর্যয়ের পুনরাবৃত্তির, যখন দেশে বিগত ৮০ বছরে সবচেয়ে ভীষণ বন্যা হয়েছিল. আবহবিদরা সতর্ক করে দিচ্ছেন যে, আগামী কয়েক দিনে পাকিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলে প্রবল বৃষ্টি থামবে না.